Foto

মালদ্বীপে প্রকৃত গণতন্ত্র চান মোদি


মালদ্বীপে কয়েক মাস ধরে রাজনৈতিক অস্থিরতা চলছে দেশটির প্রধান বিরোধী নেতারা হয় জেলে, না হয় দেশছাড়া মালদ্বীপে রাজনৈতিক দমন-পীড়নের বিরোধিতা করছে ভারত মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশটিতে প্রকৃত গণতন্ত্র ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গত রোববার ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ দাবি জানান।


ভারতীয় সামরিক কর্মকর্তা প্রত্যাহার এবং দুটি সামরিক হেলিকপ্টার ভারতকে ফেরত দেওয়ার কথা জানায় মালদ্বীপ। ওই ঘটনার পর মোদির এই বক্তব্যকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারত মহাসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে কয়েক মাস ধরেই রাজনৈতিক অস্থিরতা চলছে। দেশটির শক্তিশালী শাসক প্রেসিডেন্ট আবদুল্লা ইয়ামিন তাঁর প্রধান বিরোধী নেতাদের হয় জেলে পুরেছেন, না হয় দেশছাড়া করেছেন। মালদ্বীপের বর্তমান সরকারের এই রাজনৈতিক দমন-পীড়নের বিরোধিতা করে আসছে ভারত। আর মালদ্বীপ সরকার দিল্লির এই বিরোধিতাকে অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বলে দাবি করছে। এর মধ্যে ২৩ সেপ্টেম্বর মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বিরোধীরা আশঙ্কা করছেন, নির্বাচন পেছাতে পারে।

মোদি বলেন, মালদ্বীপের রাজনৈতিক পরিস্থিতি আন্তর্জাতিক উদ্বেগের বিবেচনাযোগ্য একটি বিষয়। আমি আশা করি, মালদ্বীপ সরকার শিগগিরই রাজনৈতিক প্রক্রিয়া পুনর্গঠনের কাজ শুরু করবে এবং সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার ভিত্তিতে বিচার বিভাগের স্বাধীনভাবে কাজ করাসহ গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠাগুলোকে কাজ করার অনুমতি দেবে। এটা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের জন্য কার্যকরী পরিবেশ সৃষ্টি করবে।

চলতি বছরের প্রথম দিকে মালদ্বীপের বরখাস্ত পার্লামেন্ট সদস্যদের দায়িত্ব পুনর্বহাল ও ভিন্নমতালম্বীদের কারাগার থেকে মুক্তি দেওয়ার আদেশ দেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। এই ঘটনার জেরে গত ফেব্রুয়ারি থেকে দেশটিতে ৪৫ দিনের জরুরি অবস্থা চলে। জরুরি অবস্থার মধ্যে মালদ্বীপের প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি, এমনকি দেশটির দীর্ঘদিনের শাসক ইয়ামিনের সৎভাই মামুন আবদুল গাউয়ুমকে গ্রেপ্তার করা হয়। ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ ও মানবাধিকার সংগঠন এই অভিযানে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

এদিকে ভারতে নিযুক্ত মালদ্বীপের রাষ্ট্রদূত আহমেদ মোহাম্মদ বলেছেন, জুনে চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় ভারতীয় সেনা প্রত্যাহার ও সামরিক হেলিকপ্টার ভারতকে ফেরত দিতে চায় মালদ্বীপ। তিনি বলেন, উদ্ধারকাজের জন্য দুটি হেলিকপ্টার দেয় ভারত। কিন্তু সেটা এখন আর প্রয়োজন নেই। কারণ, দেশটির নিজেদেরই প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম কেনা হয়েছে।

Facebook Comments

" ইন্ডিয়ান সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ