Foto

‘হিরো সাজতে অস্ত্র নিয়ে বিমানবন্দরে আসছেন যাত্রীরা’


খেলনা পিস্তল দিয়ে বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টা, চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের পিস্তল ধরতে না পারা- এই দুটো ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো প্রশ্নের মুখে পড়েছে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। শুক্রবার (৮ মার্চ) সকালে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে প্রথম চেকিং পার হয়ে গেলেও ধরা পড়েনি যাত্রী মামুন আলীর কাছে থাকা অস্ত্র।


তবে চেকিংয়ে ধরা না পড়ায় মামুন নিজেই নিরাপত্তকর্মীদের জানান, তার কাছে অস্ত্র আছে।

এদিকে এ ঘটনার পর বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব এম মহিবুল হক বলেছেন, ’এক শ্রেণির মানুষ মিডিয়া কাভারেজ পাওয়ার জন্য এই হীন (অস্ত্র নিয়ে বিমানবন্দরে যাওয়া) প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে শুরু করেছেন। এরা হিরো সাজার আর কোনো প্রক্রিয়া রপ্ত করতে পারেননি।’

সচিব এম মহিবুল হক বলেন, ’দেশের ভাবমূর্তি রক্ষায় বিমানবন্দরে দায়িত্বরত নিরাপত্তা কর্মীদের সহযোগীতার পরিবর্তে বিতর্কিত করতে বেশি সোচ্চার ব্যক্তিরাই একের পর এক এসব করে যাচ্ছেন। বিমানবন্দরে পিস্তল নিয়ে জাহির করে নিজেকে আলোচনায় আনার চেষ্টা করছেন।’

তিনি বলেন, ’এই হীন মানসিকতা বেবিচককে (বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ) বিতর্কিত করে রাষ্ট্রকে অকার্যকর করার চেষ্টা বলে আমি মনে করি। এ ধরনের তামাশা করতে এক শ্রেণির মানুষ তাদের উৎসাহিত করে যাচ্ছেন। ঘোষণা না দিয়ে অস্ত্র নিয়ে বিমানবন্দরে গিয়ে নাটক বানিয়ে গণমাধ্যমের দৃষ্টি আকর্ষণ করাই তাদের উদ্দেশ্য।’

মহিবুল হক আরও বলেন, যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করার পরামর্শ দিচ্ছি। যারা দেশের ভাবমূর্তির চিন্তা না করে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে বিতর্কিত করার ফাঁকফোকর খুঁজবেন, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। কারণ, ব্যক্তির চেয়ে দেশ বড়।

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ