Foto

হামলা থেকে বাঁচতে সিংহকে গলা টিপে মারলেন দৌড়বিদ


বনে ট্রাকিং করতে গিয়ে হিংস্র প্রাণির হামলার মুখে পড়া নতুন কোন ঘটনা নয়।হামলার কারণে অনেকে প্রাণও হারান। এবার মানুষের হাতেই মারা পড়ল এক হিংস্র প্রাণি। তবে গুলির আঘাতে নয়, রীতিমতো লড়াই করে খালি হাতে এক সিংহকে মারলেন একজন দৌড়বিদ।


জানা গেছে, আমেরিকার কলোরাডোয় পাহাড়ি রাস্তায় দৌড়ানোর সময় সিংহের আক্রমণের মুখে পড়েছিলেন ওই দৌড়বিদ।নিজেকে বাঁচাতে সিংহের সঙ্গে লড়াই করে সেটাকে হত্যা করেন ওই ব্যক্তি।

কলোরোডা পার্কের একজন কর্মকর্তা রেবেকা ফেরেল জানান, সোমবার বিকেলে হর্সটুথ মাউন্টেনের ওয়েস্ট রিজ ট্রেলের পাহাড়ী রাস্তায় দৌড়াতে বেরিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। দৌড়নোর সময় হঠাৎ পিছনে একটা গর্জন শুনতে পান তিনি। ঘুরে দাঁড়াতেই তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে প্রায় ৩৭ কেজি ওজনের একটি পাহাড়ি সিংহ।

প্রতিরোধের আগেই লোকটির মুখ ও হাতের কবজিতে কামড় দেয় সিংহটি। লোকটি সর্বশক্তি দিয়ে নিজেকে সিংহের আক্রমণ থেকে মুক্ত করার চেষ্টা করেন। লড়াইয়ের এক পর্যায়ে নিজেকে বাঁচাতে সিংহের গলা টিপে ধরেন তিনি। আর তাতেই শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয় সিংহটির। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ওই ব্যক্তি।চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির মুখে গভীর ক্ষত রয়েছে। হাত, পা এবং শরীরের অন্য অংশেও ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে।

রেবেকা ফেরেল জানিয়েছেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলছে শ্বাসরোধ হয়েই মৃত্যু হয়েছে সিংহটির।তিনি আরও জানান, লোকটি যেহেতু দৌড়াতে বেরিয়েছিলেন তাই তার কাছে প্রতিরোধমূলক কোনও অস্ত্র ছিল না। সাহস আর ইচ্ছশক্তির জোরে তিনি বেঁচে গেছেন।

কলোরাডো পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সূত্র বলছে, পাহাড়ি সিংহরা সাধারণত হামলা করে না। এরা বেশ শান্ত ও ধীর স্থির হয়। তবে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটেছে। অনেক মানুষই আজকাল তাদের আস্তানার আশেপাশে যাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, এতেই বিরক্ত হয়ে উঠছে সিংহরা।

১৯৯০ সাল থেকে এই পর্যন্ত কলোরোডার ওই অঞ্চলে পাহাড়ি সিংহের আক্রমণে ১৬ জন আহত হয়েছেন, নিহত হয়েছেন ৩ জন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে যে সিংহগুলো হামলা চালিয়েছে সেগুলো পূর্ণবয়স্ক নয়। এই ব্যক্তির ক্ষেত্রেও হামলাকারী সিংহটি অল্পবয়সী বলে জানা গেছে।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ