Foto

সুন্দরবনে সিলভার ডিসকভার


ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ বিশ্বের ৮টি দেশের পর্যটক নিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যটকবাহী জাহাজ সিলভার ডিসকভার এখন সুন্দরবনের অভ্যন্তরে ঘুরে বেড়াচ্ছে। রোববার সন্ধ্যার আগে ৬১ জন বিদেশি পর্যটক নিয়ে মোংলা বন্দরের জেটিতে ভেড়ে জাহাজটি। কাস্টমস ইমিগ্রেশন, বন বিভাগের রেভিনিউসহ সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করে গভীর রাতে সুন্দরবনে উদ্দেশে যাত্রা করে সিলভার ডিসকভার। গতকাল সোমবার থেকে শুরু হওয়া এ পর্যটন চলবে আগামীকাল বুধবার পর্যন্ত। এ সময় সুন্দরবনের বিভিন্ন স্পট ঘুরে দেখবেন বিদেশি পর্যটকরা।


জাহাজটিতে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, কানাডা ও নেদারল্যান্ডসসহ কয়েকটি দেশের পর্যটক রয়েছেন। ভারতের চেন্নাই থেকে ছাড়া বিলাসবহুল আন্তর্জাতিক এ পর্যটক জাহাজে ভ্রমণে জনপ্রতি খরচ পড়ছে ২ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রের ব্যক্তিমালিকানাধীন এ জাহাজে করে আসা এসব পর্যটক এর আগে আরও কয়েকটি দেশ ঘুরে ভারতের চেন্নাই হয়ে মোংলা বন্দরে প্রবেশ করে। জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট মোহাম্মদ আলী আকবর জানান, আগামী বৃহস্পতিবার মহেশখালীতে অবস্থান করে পরের দিন মিয়ানমারের উদ্দেশে যাত্রা করবে জাহাজটি। আগামী ১২ ও ২২ ফেব্রুয়ারি নতুন পর্যটক নিয়ে আবারও বাংলাদেশে আসবে জাহাজটি।

এদিকে ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরস প্রতিষ্ঠান পাগমার্কের মালিক ও সিলভার ডিসকভারের বাংলাদেশি প্রতিনিধি মো. নজরুল ইসলাম বাচ্চু জানান, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও লন্ডনসহ বিশ্বের ৮টি দেশের পর্যটক নিয়ে সিলভার ডিসকভার বাংলাদেশে ২০১৭ সালেও এসেছিল। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছর বাংলাদেশে আরও দুবার পর্যটক নিয়ে আসবে জাহাজটি। এর ফলে কাস্টমস, বন বিভাগ আর সংশ্নিষ্ট সবাই আয় করবেন এ খাত থেকে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রচারণা বাড়বে সুন্দরবনের। আগামীতে সুন্দরবনে বাড়বে ভিনদেশি পর্যটকদের সংখ্যা- এমন প্রত্যাশা এ ব্যবসায়ীর।

অন্যদিকে মোংলা কাস্টমস হাউসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শেখ রাসেল রানা জানান, ভিনদেশি পর্যটক বা কোনো নাগরিক বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে খুব স্বচ্ছতা আর আন্তরিকতার সঙ্গে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। বাংলাদেশ বা বাংলাদেশের সংশ্নিষ্ট দপ্তরগুলোর প্রতি বিদেশিদের আগ্রহ যেন বাড়ে সে লক্ষ্যে কাজ করছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। জাহাজটিতে যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, কানাডা ও নেদারল্যান্ডসসহ কয়েকটি দেশের পর্যটক রয়েছে। ভারতের চেন্নাই থেকে ছাড়া বিলাসবহুল আন্তর্জাতিক এ পর্যটক জাহাজে ভ্রমণে জনপ্রতি খরচ পড়ছে ২ লাখ ৯৩ হাজার টাকা।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান বলেন, বিশ্ব ঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন ভ্রমণের জন্যই সিলভার সি ক্রুজ পরিচালিত জাহাজ সিলভার ডিসকভার সুন্দরবনে এসেছে। তিনি আরও বলেন, এর আগে ২০১৭ সালে জাহাজটি ১৭টি দেশের ১৬২ জন পর্যটক নিয়ে সুন্দরবন ভ্রমণে আসে। এ ছাড়াও আগামী ফেব্রুয়ারিতে আরও দুবার বাংলাদেশ ও সুন্দরবনে আসবে জাহাজটি।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার দুরুল হুদা বলেন, রোববার বিকেলে জাহাজের বিদেশিদের ইমিগ্রেশনের কাজ শেষ হওয়ার পর থেকেই তারা তিন দিন সুন্দরবনে অবস্থান করবেন এবং দর্শনীয় স্থানগুলো ঘুরে দেখবেন। এর পর বুধবার চট্টগ্রামের মহেশখালী দ্বীপ হয়ে বৃহস্পতিবার মিয়ানমারে যাবেন।

Facebook Comments

" ভ্রমণ ও প্রকৃতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ