Foto

সিইসির বক্তব্য নিয়ে বিশ্লেষকদের মন্তব্য


‘নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা এবং নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের পাল্টাপাল্টি বক্তব্য এখন টক অব দ্য কান্ট্রি।



মাহবুব তালুকদারের খোলামেলা বক্তব্য- নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই। এটি এখন একটা অর্থহীন কথায় পর্যবসিত হয়েছে। তিনি এ বিষয়ে সাংবাদিকসহ সবাইকে বিবেকের কাছে প্রশ্ন করতে বলেছেন।

অপরদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার নুরুল হুদা এর জবাবে বলেছেন, এটি মাহবুব তালুকদারের ব্যক্তিগত মত এবং সত্য নয়। তিনি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নেই এমনটি মনে করেন না।

তার মতে, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে। ছোটখাটো কিছু সংঘাত হয়ে থাকে। সেটা তেমন বড় কিছু নয়।

এদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদার এমন বক্তব্য রাজনীতি ও নির্বাচন বিশ্লেষকদের কয়েকজন মেনে নিতে পারেনি।

বুধবার এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তারা মূল বক্তব্যে যুগান্তরকে বলেন, সবকিছু চোখের সামনে ঘটছে। টিভি সংবাদে লাইভ ভিডিও ছাড়াও পত্রিকায় স্থিরচিত্রে দেখা যাচ্ছে কিভাবে সরকারি দলের লোকজন বিরোধীদের নির্বাচনী প্রচারে বাধা দিচ্ছে, হামলা করছে। এটি তো আগে কখনও এভাবে দেখা যায়নি। এরপরও কেউ যদি বলেন, সব ঠিক আছে, তাহলে বলতে হবে তার চোখ অথবা চশমায় সমস্যা আছে।

তবে তারা মনে করেন, এভাবে চলতে থাকলে দলীয় সরকারের অধীনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের যে চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন তা ব্যর্থ হবে। এছাড়া বিদ্যমান অবস্থা বহাল থাকলে পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাবে।

প্রসঙ্গত, সোমবার নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বলে কিছু আছে বলে মনে করেন না- এমন বক্তব্য দেয়ার পরদিন মঙ্গলবার রাঙ্গামাটিতে সিইসি কেএম নুরুল হুদা বলেন, ‘এ বক্তব্য তার ব্যক্তিগত ও অসত্য। সারা দেশে নির্বাচন উপলক্ষে প্রচারণা হচ্ছে, মিছিল হচ্ছে, মাইকিং হচ্ছে, পোস্টারিং হচ্ছে। এখানে আর কী বাকি আছে নির্বাচনের মাঠ লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড হতে? নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে। ছোটখাটো কিছু সংঘাত হয়ে থাকে। সেটা তেমন বড় কিছু নয়।’

অথচ সিইসি যখন এমন বক্তব্য দেন সেদিনই ঢাকায় বিএনপির প্রার্থী আফরোজা আব্বাসের প্রচারে প্রকাশ্যে লাঠিসোটা নিয়ে সরকারি দলের লোকজন হামলা করে। একইদিন দেশের কয়েকটি স্থানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের ওপরও হামলার ঘটনা ঘটে।

সারা দেশে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত হয়েছে- সিইসির এমন বক্তব্যের পরিপ্র্রেক্ষিতে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিয়ে সিইসির বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় এম হাফিজ উদ্দিন খান যুগান্তরকে বলেন, ‘তিনি (সিইসি) চোখে কম দেখেন এবং কানে কম শোনেন। যেখানে সবাই দেখছে এবং জানছে যে সারা দেশে বিরোধীদলীয় প্রার্থীদের ওপর হামলা নির্যাতন হচ্ছে, সেখানে তিনি কিভাবে এমন কথা বলেন সেটাই বুঝতে পারছি না।’

তিনি বলেন, সেখানে সরকার-মন্ত্রিসভা বহাল আছে, সাড়ে তিনশ’ এমপি বহাল আছে, তারা তাদের ক্ষমতা ব্যবহার করতে পারছেন, তাদের প্রভাব বিস্তারের সুযোগ রয়েছে- সেখানে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড কিভাবে নিশ্চিত হয়েছে সেটাই বোধগাম্য নয়। সারা দেশে বিরোধী জোটের প্রার্থী ও নেতাকর্মীদের ওপর হামলা হচ্ছে, তারা নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারছে না- এসব বিষয় গণমাধ্যমে উঠে আসছে। বাস্তব পরিস্থিতিই বলে দেয় এখনও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত হয়নি।

সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইমাম মজুমদার তার প্রতিক্রিয়ায় যুগান্তরকে বলেন, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত হয়েছে বলে সিইসি যে মন্তব্য দিয়েছেন সেটা আরও বিশ্লেষণ করে বলতে পারতেন। তবে দেশের পরিস্থিতি একেবারে হতাশ হওয়ার মতো বা নির্বাচন করার মতো উপযোগী নয় তাও ঠিক নয়। তবে সিইসি সাহেবের উচিত ছিল বিষয়টি আরও ব্যাখ্যা করে উপস্থাপনা করা। সাবেক এই সরকারি কর্মকর্তা বলেন, তবে বিভিন্ন স্থানে যারা একের পর এক হামলা করছে, নির্বাচন কমিশনের উচিত দলমত নির্বিশেষে সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা। তা না হলে হামলাকারীরা আরও উৎসাহিত হবে।

প্রায় একই মন্তব্য করে বদিউল আলম মজুমদার বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কোন চশমা পরে দেখছেন তা জানি না। তবে তিনি যেই দৃষ্টিতে দেখছেন, আমরা সেই দৃষ্টিতে দেখছি না। আমরা দেখছি, নির্বাচনের মাঠ থেকে বিরোধীদের সরে যেতে বাধ্য করার প্রচেষ্টা চলছে। আমরা দেখছি, দেশে বিরূপ পরিস্থিতি চলমান আছে। বিরোধীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটছে। তিনি বলেন, এ নির্বাচনে সিইসির বক্তব্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তিনি নির্বাচনের রেফারি। কেউ নিয়মের ব্যত্যয় ঘটালে তাকেই লাল কার্ড, হলুদ কার্ড দেখাতে হবে। সেই ক্ষমতা সিইসির আছে। তবে এখন পর্যন্ত তার তেমন কোনো পদক্ষেপ দেখছি না।

তিনি মনে করেন, সিইসির এমন বক্তব্যের পর দেশের বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন প্রার্থীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটছে তা কমবে না, বরং বাড়তে পারে।

এর আগে সোমবার নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার সাংবাদিকদের এক ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘আমি মোটেই মনে করি না নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড বলে কিছু আছে। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড কথাটা এখন একটা অর্থহীন কথায় পর্যবসিত হয়েছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ মনে করেন, লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিয়ে খোদ কমিশনারদের মধ্যেই প্রকাশ্য মতভেদ রয়েছে। বিষয়টি তাদেরই পরিষ্কার করার আহ্বান জানান তিনি।

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ