Foto

সর্দি-কাশির সমস্যায় বেসন শিরা


শীত আসলেই বেড়ে যায় সর্দি-কাশি, বুকে শ্লেষ্মা বা কফ জমার সমস্যা।তাই শীতের সময়ে যাদের ঘনঘন ঠাণ্ডার সমস্যা হয় তারা হালকা কুসুম পানি দিয়ে গোসল ও খাওয়ার কাজে ব্যবহার করতে পারেন।এতে করে সমস্যা অনেকটা কমে যাবে।


অনেকেই সর্দি-কাশির সমস্যাকে তেমন গুরুত্ব দিতে চান না। কিন্তু সময় মতো চিকিৎসা না করালে বুকে শ্লেষ্মা বা কফ জমে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে পারে শ্বাসযন্ত্রে।

সর্দি-কাশির সমস্যার প্রতিকারে একটি অত্যন্ত কার্যকরী উপাদান হল বেসন। বেসন দিয়ে তৈরি সুস্বাদু একটি খাবার বা আয়ুর্বেদিক পথ্য রয়েছে যা সর্দি-কাশি, ঠাণ্ডা লাগার সমস্যা নিরাময়ে খুবই কার্যকরী।

সর্দি-কাশির সমস্যায় ঘরেই তৈরি করতে পারেন বেসন শিরা। আসুন জেনে নেই কীভাবে তৈরি করবেন বেসন শিরা।

উপকরণ

বেসন ছাড়াও এতে থাকে সামান্য ঘি, হলুদ গুঁড়ো, দুধ, গোলমরিচ গুঁড়ো আর গুড়। ‘বেসন শিরা’ অনেকটা হালুয়ার মতো খেতে। অসুস্থ ও দুর্বল শরীরকে চাঙ্গা করে তুলতে সাহায্য করে বেসন। এ ছাড়াও বেসনে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা ঠাণ্ডা দূর করতে অত্যন্ত কার্যকর। অনেক সময়ে এতে হলুদ গুঁড়ো দেওয়া হয়, সেটা ঠাণ্ডা দূর করতে কাজে আসে। ঘিয়ে ধীরে ধীরে বেসন ভাজার কারণে এবং এতে গুড় দেওয়ার কারণেও শরীর ভেতর থেকে গরম হয়ে আসে।

প্রণালী

একটি পাত্রে কয়েক ৩-৪ চামচ ঘি গরম করে নিয়ে তাতে ধীরে ধীরে ভাল করে নেড়েচেড়ে বেসন ভেজে নিন। বেসনের রং গাড় হলুদ হয়ে এলে এতে দুধ দিয়ে ফের নাড়তে থাকুন। মিনিট পাঁচেক পর হলুদ আর গোলমরিচ গুঁড়ো দিয়ে ভাল করে নেড়েচেড়ে মেশাতে থাকুন। সবশেষে এর মধ্যে আন্দাজ মতো গুড় দিয়ে ৫-৭ মিনিট নেড়েচেড়ে আঁচ থেকে নামিয়ে নিন। স্বাদ বাড়াতে আঁচ থেকে নামিয়ে বেসন শিরার ওপর থেকে সামান্য বাদামও ছড়িয়ে দিতে পারেন। গরম থাকতে থাকতেই খেয়ে নিন বেসন শিরা।

Facebook Comments

" সুস্বাস্হ্য " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ