Foto

সরকারের ব্যর্থতায় ফণীতে ১৫ জনের মৃত্যু: রিজভী


বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করে বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় ফণী থেকে মানুষকে নিরাপদে রাখতে সরকার ব্যর্থ হওয়ায় ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সারাদেশে নোয়াখালী, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জসহ সামুদ্রিক উপকূলীয় এলাকায় অনেক মানুষ মারা গেছেন। সরকারের প্রস্ততি থাকলে এটা হওয়ার কথা ছিলো না।


শনিবার রাজধারীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের অঙ্গসংগঠন জাতীয়তাবাদী তাঁতী দলের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে প্রতীকী গণঅনশনে তিনি এ বলেন।

সকাল ১১টা থেকে তিন ঘন্টার এই প্রতীক অনশনে রুহুল কবির রিজভী বলেন, উপকূলীয় আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে দুর্গতদের জন্য সরকার খাবারের ব্যবস্থা করেনি। সেখানে রান্না করে খাওয়ার ব্যবস্থাও করতে পারেনি ভূক্তভোগী সাধারণ মানুষ। হাজার হাজার মানুষজনকে ওই ছোট্ট জায়গায় আশ্রয় নিতে হয়েছে। এসব মানুষের আপদকালীন সবকিছু সরকারেরই ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথা। দুর্গত মানুষের আশ্রয় দেওয়া, তাদের খাবারের ব্যবস্থা করা, তাদেরকে প্রাণে বাঁচানো। কিন্তু তারা কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারকে ক্ষমতায় থাকতেই হবে। তাতে গণতন্ত্র শেষ হলেও তা তাদের করতে হবে। তাতে সরকারের কিছু যায় আসে না। ক্ষমতায় থাকার জন্য এই সরকার সব ধ্বংস করে দিয়েছে, সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রক্রিয়া ধ্বংস করে দিয়েছে। সরকারের সব পরিকল্পনাই বাস্তবায়ন হয়েছে। এখন খালেদা জিয়াকে সুস্থভাবে বাঁচার জন্য তাকে মুক্তি দিন।

কারাগারের একজনের মৃত্যুর কথা তুলে ধরে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, কারাগারের মধ্যে অ্যাডভোকেট পলাশ কুমার রায়কে আগুন জ্বালিয়ে পুড়িয়ে মারা হয়েছে। এতো বড় একটি ঘটনা কোনও গণমাধ্যমে ফলাও করে প্রচার হয়নি। কেনো হয়নি জানি না। এই কারাগার সরকারের নির্যাতনের যন্ত্রে পরিণত হয়েছে, মৃত্যুকূপে পরিণত হয়েছে। তাই খালেদা জিয়ার জীবন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছেন তারা।

সংগঠনের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনশনে বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সদস্য সচিব মজিবুর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক বাহা উদ্দিন বাহারসহ তাঁতী দলের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ