Foto

লড়াই শব্দটা ব্যবহারের সুযোগ দিল না ভারত


ভারতীয় দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানে অসহায় হয়ে পড়েছিল পাকিস্তানের বোলিং লাইনআপ। পাকিস্তানকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে ভারত ১২৬ বল হাতে রেখে ১৬৩ রানের লক্ষ্য ছুঁয়েছে ভারত ২১ সেপ্টেম্বর সুপার ফোরে বাংলাদেশের মুখোমুখি ভারত রোহিত শর্মার টানা দুই চারেই ম্যাচের বাকি সময়টার দিক নির্দেশনা মিলেছিল। সপ্তম ওভারে মোহাম্মদ আমিরকে টানা দুটি চার মেরে শিকল ভাঙার শুরুটা করেছেন ভারত অধিনায়ক। ১৬৩ রানের ছোট লক্ষ্যে এরপর আর ভারতকে আটকে রাখা যায়নি। পাকিস্তানকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সুপার ফোরের প্রস্তুতিটা ভালোভাবেই সেরে নিয়েছে ভারত দল। হংকংয়ের কাছে কোণঠাসা হয়ে পড়া দলটিই আরব আমিরাতের কন্ডিশনে সবচেয়ে ফেবারিট দলকে নাকানি-চুবানি খাইয়ে ছাড়ল আজ।


ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ! লড়াই, মহারণ—আরও কত কত সব বিশেষণ। সব বিশেষণেরই লক্ষ্য এক, দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর মাঝে লড়াইয়ের ঝাঁজ বোঝানো। কিন্তু পাকিস্তান যে পথেই এগোয়নি। ভারতের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করে বসেছে সরফরাজ আহমেদ ও তাঁর দলবল। কাগজে-কলমে ক্ষীণ শক্তির ভারতের বিপক্ষে ১৬২ রানে গুটিয়ে গিয়েছে তাঁরা। এ কয়েকটা রান পুঁজি করেই মোহাম্মদ আমির ও উসমান খান ভালো শুরু করেছিলেন। রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ানের মতো দুই আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান থাকার পরও প্রথম ৬ ওভারে এল মাত্র ১৭ রান।

প্রথম ১৭ বলে মাত্র ৬ রান তোলা রোহিত আমিরের চতুর্থ ওভারের চতুর্থ ও পঞ্চম বলে দুই চার মেরে ইনিংসের গতি পাল্টাতে শুরু করলেন। পরের ওভারে তো উসমানকে বোলিং থেকেই সরিয়ে দিলেন। চতুর্থ বলে পুল করে উইকেটরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে ছক্কা। পরের বলে চার, সেটাও ছিল নো বলে। ফ্রি হিটে লেংথ বল করে বসলেন উসমান। ফ্রি হিটে এত বড় সুযোগ হাতছাড়া করার পাত্র তো রোহিত নন। মিড উইকেট দিয়ে বিশাল এক ছক্কায় রান রেট এক ঝটকায় ছয়ের কাছে নিয়ে গেলেন ভারত অধিনায়ক।

এতটা আগ্রাসী মূর্তি অবশ্য রোহিতকে আর দেখাতে হয়নি। তবু মাত্র ৩৬ বলেই পঞ্চাশ তুলে ফেললেন ১৩তম ওভারেই। যার শেষ ৪৫ রান এসেছে ১৯ বলে! অন্যপ্রান্তে শিখর ধাওয়ান তাই বেশ রয়েসয়েই খেলতে পারলেন। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান আজ প্রথম ২৮ বলে মাত্র ১৪ রান তুলেছেন। এর পর অবশ্য চেনা ছন্দেই ফিরেছেন ধাওয়ান। ১৩ ওভারেই ৮৬ রান তুলে ফেলেছিল ভারতের উদ্বোধনী জুটি।

এরপরই স্বস্তি পেয়েছে পাকিস্তান। বল হাতে পেয়ে প্রথম বলটাই গুগলি করলেন শাদাব খান। লেগ স্পিন মনে করে খেলতে গিয়ে বোল্ড রোহিত। ৩৯ বলে ৫২ করে রোহিত ফেরার কিছুক্ষণ পর ফিরেছেন ধাওয়ান। ফাহিম আশরাফের বলে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে ধরা পড়েছেন ফিফটি থেকে ৪ রান দূরে। ততক্ষণে অবশ্য ১০০ পেরিয়ে গেছে ভারত। বাকি সময়টা ধীরে সুস্থেই ম্যাচ বের করে নিয়েছেন আম্বাতি রাইডু ও দিনেশ কার্তিক। এর পেছনে অবশ্য শাদাবের মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়াও ভূমিকা রেখেছে। মাত্র ৯ বল করেই পিঠে ব্যথা নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন এই লেগ স্পিনার। তবে হেঁটেই মাঠ ছাড়তে পেরেছেন শাদাব। ম্যাচের প্রথমার্ধে পিঠে ব্যথা পেয়ে হার্দিক পান্ডিয়াকে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল স্ট্রেচারে করে।

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ