Foto

রহস্যজনক মৃত্যু : খাদ্যমন্ত্রীর জামাইয়ের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন


খাদ্যমন্ত্রী সাধনচন্দ্র মজুমদারের মেয়ের জামাই ডা. রাজন কর্মকারের (৪২) মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। রাজনের মৃত্যু রহস্যজনকভাবে হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছিল তার পরিবার। এর পর গতকাল রোববারই নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছিল।


আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানে আলম দৈনিক আমাদের সময় অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি বলেন, ’ডা. রাজনের লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করেছেন সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের চিকিৎসকরা। ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্ট এখনো আমাদের কাছে আসেনি। ’

এদিকে ডা. রাজনের এক সহকর্মী জানান, ময়নাতদন্তের পর রাজনের মরদেহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সেখানে তার মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে।

গতকাল রোববার ভোরে রাজধানীর ইন্দিরা রোডের বাসা থেকে ডা. রাজনকে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের একজন চিকিৎসক জানান, রাজনের শ্যালিকা তাকে হাসপাতালে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় নিয়ে আসেন। কিছু সময় পর হাসপাতালে আসেন তার স্ত্রী কৃষ্ণা মজুমদার। তিনি দাবি করেন, হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার স্বামীর মৃত্যু হয়েছে।

তবে ডা. রাজনের স্বজনদের অভিযোগ, এটি স্বাভাবিক মৃত্যু নয়, দাম্পত্য কলহের জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর পরই রাজনের সহকর্মী ও ছাত্ররা হাসপাতালে ছুটে যান। এই চিকিৎসককে হত্যা করা হয়েছে দাবি করে তারাও বিচার চেয়ে স্লোগান দেন।

এ বিষয়ে অবশ্য স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও মন্ত্রীর পরিবারের কেউ কথা বলতে রাজি হননি। তবে অভিযোগ পেয়ে শেরেবাংলা নগর থানাপুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য রাজনের মরদেহ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছিল।

 

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ