Foto

যুবলীগের ভয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী, পুলিশ বলল নিরাপদ আশ্রয় নিন


গাজীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ইজাদুর রহমান মিলন চৌধুরী ভোট বর্জন করেছেন।


মঙ্গলবার সকালে ভোটগ্রহণ শুরুর দুই ঘণ্টার মধ্যে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি র্নিবাচন বর্জনের ঘোষণা দেন। এ সময় তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ৯টায় নিজ কেন্দ্রে ভোট দিতে গিয়ে দেখেন যুবলীগ কেন্দ্র দখল করে আছে। তাকে ভোটকেন্দ্রে ঢুকতেই দেওয়া হয়নি। কেউ কেউ তাকে খুঁজতে থাকেন। পুলিশের সাহায্য চাইলে নিরাপদে আশ্রয় নিতে বলন। ভয়ে ও নিরোপত্তাহীনতায় তিনি পাশের চাচার বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেন। এ সময় সবগুলো ভোটকেন্দ্র থেকে এজেন্টদের মারধর করে বের করে দেওয়ার খবর আসতে থাকে। কর্মী-সমর্থকদের ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছে না। বাধ্য হয়ে কেন্দ্র ত্যাগ করে বাসায় ফিরে যাই। রাত থেকেই বাসা ঘিরে রেখেছে পুলিশ। রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসককে জানিয়েও কোনো সহযোগিতা পাইনি। পুলিশ সুপারকে ফোন করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। এ পরিস্থিতিতে নির্বাচন করা যায় না। তাই ভোট বর্জন করে সরে দাঁড়ালাম এবং পুনর্নির্বাচন দাবি করছি। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমার বিজয় সুনিশ্চত ছিল। এ অবস্থা বুঝতে পেরে তারা আমাকে নানা হুমকি-ধমকি দিচ্ছিল এবং কেন্দ্র থেকে আমার এজেন্টদের মারধর করে বের করে দিচ্ছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবু নাসার উদ্দিন বলেন, কোথাও কোনো গোলযোগের খবর তিনি জানেন না। শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন চলছে। এজেন্ট বের করে দেওয়া বা তাদের মারধর করার বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেননি।

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ