Foto

মোবাইল অপারেটরের ডাটা ব্যবহার বেড়েছে


মোবাইল অপারেটরের ডাটা বিক্রি এবং এর ব্যবহার বেড়েছে। কমেছে ভয়েস কলের পরিমাণ। ডাটা বিক্রির ক্ষেত্রে চলছে প্রতিযোগিতা। দীঘির্দন ধরে ডাটা ব্যবহারের শীষের্ ছিল গ্রামীণফোন।সবের্শষ প্রকাশিত জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, অন্তত গ্রাহকপ্রতি ডাটা ব্যবহারের দিক থেকে অন্যদের তুলনায় এগিয়ে গেছে রবি। তবে এ খাত থেকে আয়ে জিপি এখনো শক্ত অবস্থানে রয়েছে।


বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে রবির প্রতিটি ইন্টারনেট সংযোগে থাকা গ্রাহক গড়ে মাসে ১১৮২ মেগাবাইট ডাটা ব্যবহার করেছে। সেই তুলনায় গ্রাহক বিচারে শীষর্ অপারেটর গ্রামীণফোনের অবস্থানও প্রায় কাছাকাছি। তাদের প্রতিটি ইন্টারনেট গ্রাহক গড়ে ব্যবহার করেছে ১১৪৯ এমবি ডাটা। এবারই প্রথম গ্রামীণফোনকে ডাটা ব্যবহারে ছাড়াল রবি।

এপ্রিল-জুন প্রান্তিকে ডাটার গড় ব্যবহারে অবশ্য রবির তুলনায় এগিয়ে ছিল গ্রামীণফোন। তখন গ্রামীণফোনের প্রতিটি ইন্টারনেট গ্রাহক ৯৮৬ এমবি ডাটা ব্যয় করেন। রবির সেখানে ছিল ৯৪৯ এমবি। বাংলালিংক বরাবরের মতো বেশ খানিকটা পেছনে, গ্রাহক প্রতি তাদের ব্যবহার ৬৮৫ এমবি।

ব্যবহারের মতো ডাটা থেকে আয়ে গ্রামীণফোন ও রবি এগিয়ে। তবে আয়ের দিক থেকে জিপির অবস্থান অনেক উপরে। জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে গ্রামীণফোনের ৩ কোটি ৬৪ লাখ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ব্যয় করেছেন ৬৬০ কোটি টাকা। সেখানে রবির ২ কোটি ৮০ লাখ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ব্যয় করেন ৪৩৮ কোটি টাকা। একই সময়ে ইন্টারনেট ব্যবহার থেকে বাংলালিংকের আয় হয়েছে মাত্র ১৯০ কোটি টাকা।

এ বিষয়ে বিচলিত নয় গ্রামীণফোন। প্রতিষ্ঠানটির এক্সটারনাল কমিউনিকেশন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর সাইয়েদ তালাত কামাল বলেন, সবের্শষ প্রান্তিক নয়, বছরের গড় হিসাবে গ্রামীণফোন এখন পযর্ন্ত এগিয়ে আছে।

তিনি বলেন, কিছুদিন ধরে সব অপারেটরের ডাটার ব্যবহার বেড়েছে। এ সময়ে কমেছে ভয়েস কলের পরিমাণ। এটি নতুন ধারার সূচনা।

Facebook Comments

" প্রযুক্তি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ