Foto

মেসি-রোনাল্ডোর মুকুট এবার উঠবে এমবাপের মাথায়


ফরাসি এই তরুণ তারকা পেলেন বড় সার্টিফিকেট। ইংল্যান্ডের প্রাক্তন তারকা ফুটবলার রিও ফার্নিদান্দ বলেছেন, দুরন্ত ফুটবল খেলে ফ্রান্সকে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন করার নায়ক তিনি। পেলের পর সবচেয়ে কম বয়েসে বিশ্বকাপ ফাইনালে গোল করে ফুটবল দুনিয়ায় এখন মহানায়ক 19 বছরের এমবাপে। পেলে অভিনন্দন জানিয়েছেন এমবাপেকে। এবার ফরাসি এই তরুণ তারকা পেলেন বড় সার্টিফিকেট। ইংল্যান্ডের প্রাক্তন তারকা ফুটবলার রিও ফার্নিদান্দ বলেছেন, "মেসি-রোনাল্ডো নয়, আগামী দিনে ব্যালন ডি,অর হাতে দেখা যাবে টিনেজ সেনশেসান এমবাপেকে "


পাশাপাশি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রাক্তন ফুটবলার ফার্দিনান্দ বলেছেনে, মেসি-রোমাল্ডোর মুকুট এবার এমবাপের মাথায় ওঠার পালা। সঙ্গে ইংল্যান্ডের জার্সিতে 81টি ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে 312টি ম্যাচ ফেলা ফার্দিনান্দ বলছেন, আমার মনে হয় আমার পুরনো ক্লাব (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড) এমবাপেকে দলে নিতে ঝাঁপাবে। এমবাপের সতীর্থ পল পোগবা এখন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে খেলছেন, ফার্দিনান্দ বলছেন, তাঁর প্রিয় ক্লাবে এমবাপে-পোগবা জুটি দারুণ মানাবে।

মস্কোর মাঠে পেলে ফিরলেন এমবাপে হয়ে। টুইটারে এমনই এক পোস্ট খুব শেয়ার হচ্ছে। 1958 বিশ্বকাপের ফাইনালে পেলে 17 বছর 249 দিনে গোল করেছিলেন। আর আজ ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপে করলেন 19 বছর 207 দিন বয়সে। টিনেজার হিসেবে বিশ্বকাপের ফাইনালে গোল করে পেলেকে ছুঁলেন এমবাপে। যদিও বিশ্বকাপের ফাইনালে কনিষ্ঠতম ফুটবলার হিসেবে গোল করার রেকর্ডটা পেলের দখলেই থাকল। যে বছর ফ্রান্স প্রথমবার বিশ্বকাপ জিতেছিল, সেই বছরই জন্মেছিলেন এমবাপে। জিদানরা বিশ্বকাপ জিতেছিলেন জুলাইয়ে, আর এমবাপে জন্মেছিলেন ডিসেম্বরে। এমবাপে পেয়ে গেলেন মিনি পেলের স্বীকৃতি। বিশ্বকাপের গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে পেরুর বিরুদ্ধে গোল করেছিলেন এমবাপে। বিশ্বকাপে টিনেজার হিসেবে গোল করে সেদিনই স্পর্শ করেছিলেন পেলেকে। এরপর এমবাপে মেসিদের বিরুদ্ধে নক আউটে জোড়া গোল করে ফের পেলের রেকর্ড স্পর্শ করেনন। খোদ পেলে তাঁকে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠান। আর বিশ্বকাপে মোট চারটি গোল করে এমবাপে সেরা প্রতিভাবান ফুটবলারের পুরস্কার। 1958 বিশ্বকাপে ট্রফি হাতে ফিট যেভাবে লাফিয়েছিলেন পেলেন, এমবাপের সেলিব্রেশনেও তেমন ছবিই ধরা পড়ল।

ফাইনালে হারলেও গোল্ডেন বল জিতলেন ক্রোয়েশিয়ার অধিনায়ক লুকা মদরিচ। ঠিক আগেরবার ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির কাছে হারের পর যেমন মেসি জিতেছিলেন গোল্ডেন বল। মোট 6টা গোল করে গোল্ডন বুট জিতলেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন। টুর্নামেন্টের সেরা তরুণ প্রতিভার পুরস্কার পেলে ফ্রান্সের 19 বছরের এমবাপে। জিদুর পর গ্রিজু। 1998-এর পর 2018। ফ্রান্সকে দ্বিতীয়বার বিশ্বকাপ এনে দিলেন অ্যান্তেনিও গ্রিজম্যান। ফাইনালে দারুণ খেলে ম্যাচের সেরা পুরস্কার পেলেন গ্রিজম্যান। দু বছর আগে নিজেদের দেশের মাটিতে ইউরো কাপের ফাইনালে হারের পর কেঁদেছিলেন গ্রিজু। আজও কাঁদলেন, তবে খুশিতে। নিজে পেনাল্টি থেকে গোল করলেন, দলের চালিকাশক্তি হয়ে চষে বেড়ালেন গোটা মাঠ।

Facebook Comments

" ওয়ার্ল্ড কাপ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ