Foto

মাশরাফি আগুনে পুড়লো কুমিল্লা


টি-টোয়েন্টিতে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের ঝলক দেখালেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। গতকাল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) ম্যাচে মাশরাফির আগুনে বোলিংয়ে পুড়ে গেছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। মাত্র ৬৩ রানে গুটিয়ে যায় স্টিভেন স্মিথের দল। বিপিএল ইতিহাসে চতুর্থ সর্বনিম্ন ও চলতি আসরের ৬ ম্যাচে এটাই সর্বনিম্ন দলীয় সংগ্রহ।


মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সহজ লক্ষ্যটা ৮ ওভার বাকি রেখে ১ উইকেট হারিয়েই টপকে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। আসরের উদ্বোধনী ম্যাচ হারের পর টানা দ্বিতীয় জয় মাশরাফির রংপুরের। আর জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরুর পর দ্বিতীয় ম্যাচেই হোঁচট খেলো কুমিল্লা। বল হাতে চার ওভারে এক মেডেনে ১১ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেট নেন নড়াইল এক্সপ্রেস।
অবধারিতভাবেই ম্যাচসেরার পুরস্কার ওঠে মাশরাফির হাতে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মাশরাফির আগের সেরা বোলিং ফিগার ছিল ৪/১৯। গতবার রংপুরকে চ্যাম্পিয়ন করার নায়ক ক্রিস গেইলের শুরুটা ভালো হয়নি। মাত্র ১ রান করে আউট হন ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে আবু হায়দার রনির বলে এনামুল হক বিজয়ের গ্লাভসে আটকা পড়েন গেইল। তবে, দলীয় ১৪ রানে উইকেট হারানোর পর বাকি সময়টা কুমিল্লার বোলারদের হতাশা উপহার দেন মেহেদী মারুফ ও দক্ষিণ আফ্রিকার রাইলি রুশো। অবিচ্ছিন্ন জুটিতে মাঠ ছাড়েন দুজন। খুলনার বিপক্ষে আগের ম্যাচে ৭৬ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলা রুশো ব্যক্তিগত ২০ রানে অপরাজিত থাকেন। আর ৩৬ রান করে মাঠ ছাড়েন ওপেনার মারুফ। প্রথম দুই ম্যাচ টস হেরে আগে ব্যাটিং করে মিশ্র ফলাফল দেখে রংপুর। তৃতীয় ম্যাচে এসে টস জেতেন মাশরাফি। আগে ফিল্ডিং নিয়ে কুমিল্লার টপঅর্ডার ধসিয়ে দেন রংপুর অধিনায়ক। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে তামিম ইকবালকে (৪) ফরহাদ রেজার তালুবন্দি করেন মাশরাফি। নিজের পরের ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন। ইমরুল কায়েসকে (২) রবি বোপারার ক্যাচ বানানোর পর এভিন লুইসকে (৮) নাজমুল ইসলাম অপুর তালুবন্দি করেন মাশরাফি। সপ্তম ওভারে মাশরাফির চতুর্থ শিকার কুমিল্লা অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ (০)। তার ক্যাচ নেন ফরহাদ রেজা। স্মিথের বিদায়ে দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৮/৫। সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে আগের ম্যাচ জেতান শহীদ আফ্রিদি। এ ম্যাচেও চাপের মুখে একাই লড়াই করেন পাকিস্তানের সাবেক এই তারকা অলরাউন্ডার। সর্বোচ্চ ২৫ রান আসে আফ্রিদির ব্যাট থেকে। আর কেউ দুই অঙ্কের ঘরে যেতে পারেন নি। ১৬.২ ওভারে অলআউট হয় কুমিল্লা। স্পিনার নাজমুল অপু ৩টি ও পেসার শফিউল ইসলাম ২ উইকেট নেন। বিপিএলে সর্বনিম্ন ৪৪ রানের রেকর্ড খুলনা টাইটান্সের। পরের দুইটি অবস্থানে বরিশাল বুলস (৫৮) ও সিলেট সুপার স্টারস (৫৯)। গতকাল কুমিল্লাকে গুঁড়িয়ে পয়েন্ট তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসে রংপুর। ৩ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। নেট রান রেটে এগিয়ে থাকায় ২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে সাকিবের ঢাকা ডায়নামাইটস। নিজেদের পরবর্তী ম্যাচেই মুখোমুখি হবে দুদল। ৭ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেটসংগ্রাহক মাশরাফি। দ্বিতীয় স্থানে সতীর্থ শফিউল (৫)। প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রামের কাছে ৩ উইকেটে হারলেও বল হাতে উজ্জ্বল ছিলেন মাশরাফি। চার ওভারে ২৪ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন। তবে, দ্বিতীয় ম্যাচে খুলনার বিপক্ষে ৮ রানের জয়ে খরুচে ছিলেন মাশরাফি (১/৩৫)।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স-রংপুর রাইডার্স
টস: রংপুর (ফিল্ডিং)
কুমিল্লা: ৬৩
রংপুর: ৬৭/১
ফল: রংপুর ৯ উইকেটে জয়ী
ম্যাচসেরা: মাশরাফি বিন মর্তুজা

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ