Foto

মন্ত্রীর আশ্বাসে স্থগিত শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির দাবির আন্দোলন


নন-এমপিও বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে গত বুধবার থেকে রাজধানীতে টানা অবস্থান কর্মসূচি পালন করা শিক্ষকরা এক মাসের জন্য তাদের কর্মসূচি স্থগিত ঘোষণা করেছেন।


শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির আশ্বাসে তারা এ সিদ্ধান্ত নেন। মন্ত্রী রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচিতে গিয়ে দাবি মানার আশ্বাস দেন। তার সঙ্গে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনও ছিলেন।

দুপুর সাড়ে তিনটায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে শিক্ষকদের অবস্থান কর্মসূচিতে হাজির হন ডা. দীপু মনি। সেখানে তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে বলেন,’আমি আপনাদের কষ্টের বিষটি জানি। এমপিওভুক্তি ছাড়া আপনারা কীভাবে, কতো কষ্টে জীবনযাপন করেন, সে খবরও আমার কাছে রয়েছে। নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তকরণ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুিক্ত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা শুরু হবে।’

মন্ত্রী বলেন, আমরা ইতোমধ্যে এমপিওভুক্তির আবেদন গ্রহণ কার্যক্রম শেষ করেছি। যেহেতু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিও কার্যক্রম সরকারের অর্থসংশ্নিষ্ট একটি বিষয়, তাই এটি বাস্তবায়নে নানা প্রশাসনিক প্রক্রিয়া রয়েছে। এ কারণে হয়তো কিছুটা সময় লাগছে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তকরণ বিষয়টি আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারেও রয়েছে। আমি ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি। আগামী অর্থবছরে এমপিওভুক্তকরণে নতুন অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হবে হবে বলে জানানো হয়েছে। আপনারা কষ্ট না করে বাড়ি ফিরে যান। খোলা আকাশের নিচে রোদের মধ্যে দাঁড়িয়ে আর কষ্ট করবেন না। আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাব, যাতে আপনাদের কষ্ট দুর করা সম্ভব হয়। ডা. দীপু মনি শিক্ষকদের দাবি অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে শিক্ষকদের সাক্ষাৎ করিয়ে দেওয়ারও আশ্বাস দেন।

শিক্ষামন্ত্রী সেখান থেকে চলে যাওয়ার পর বিকাল ৫টায় নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বৈঠকে বসেন এবং শিক্ষামন্ত্রীর প্রতি আস্থা রেখে কর্মসূচি প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেন। শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আগামী এক মাসের মধ্যে দাবী আদায় না হলে কঠোর আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন।

সোমবার সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী ও শিক্ষাসচিবের সাথে শিক্ষক প্রতিনিধি দলের এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতের ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

আন্দোলনকারী ’নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনে’র সভাপতি গোলাম মাহমুদন্নবী ডলার সন্ধ্যায় সমকালকে বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যে সুনির্দিষ্ট কোনো আশ্বাস আমরা পাইনি। তবে মন্ত্রীর প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমরা এক মাসের জন্য কর্মসুচি স্থগিত করেছি।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিও’র দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সেেঙ্গ সাক্ষাৎ পাওয়ায় জন্য গত ২০ মার্চ থেকে ২৪ মার্চ (রোববার) টানা ৫দিন রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের সড়ক থেকে কদম ফোয়ারার সামনে পর্যন্ত দিবারাত্রি লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষক-কর্মচারীরা।

গত ২১ মার্চ বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অভিমুখে পদযাত্রার কর্মসূচি দিয়ে রওনা হলে পুলিশ কদম ফোয়ারার সামনে ব্যারিকেড দিয়ে বাঁধা দিলে শিক্ষক-কর্মচারীরা সেখানেই অবস্থান নেন। সারাদেশের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে প্রায় ১৫-২০ হাজার শিক্ষক-কর্মচারী ঢাকায় এসে এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলনে অংশগ্রহণ করেন।

Facebook Comments

" লেখাপড়া " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ