Foto

বিএনপির জন্য নির্বাচন থেমে থাকবে না: ওবায়দুল কাদের


উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ধ্বংসের পথে আরো একধাপ এগিয়ে গেলো বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, বিএনপির জন্য নির্বাচন বা সংবিধান কোনো কিছুই বসে থাকবে না। উপজেলা নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার বিএনপির নির্দেশনা তৃণমূল মানেনি।আজ শনিবার দুপুরে ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী এমপিদের নির্বাচনী এলাকায় আচরণবিধি লঙ্ঘন না করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সুবিধা বুঝে বিএনপি নির্বাচন করে। এর আগে তারা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশ নিয়েছিল। তখন চারটিতেই জিতেছিল। তাতে তো আকাশ ভেঙে পড়েনি। বিএনপি যেভাবে একের পর এক নির্বাচন বয়কট শুরু করেছে তাতে আগামী জাতীয় নির্বাচনে তাদের অবস্থা আরও খারাপ হবে। নির্বাচন থেকে দূরে সরে যাওয়া মোটেও গণতান্ত্রিক পথ নয়।

তিনি আরো বলেন, উপজেলা নির্বাচন একেবারেই পারফেক্ট হবে এটা আমি মনে করি না। নির্বাচন ব্যবস্থা পুরোপুরি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার আগে কিছু কিছু ভুল ত্রুটি ওভারকাম করতে হবে। আমরা ইলেকশন করতে করতে একটা সময় দেখা যাবে গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ নিয়েছে। তখন এ ধরনের ত্রুটি বিচ্যুতি আসবে না।

সিটি কর্পোরেশনে কাউন্সিলর পদের মতো ভাইস চেয়ারম্যান পদ ওপেন করে দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সিটি কর্পোরেশনে আমরা কাউন্সিলর পদ ওপেন করে দিয়েছিলাম। উপজেলায়ও প্রথম ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দিতে চেয়েছিলাম। পরে আমরা তা ওপেন করে দিয়েছি। তাই এখানেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

বিএনপি দলগতভাবে না আসলেও তাদের তৃণমূল অংশ নিচ্ছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখানে বিএনপি না চাইলেও গত তিনটি ধাপে তাদের অনেকে অংশ নিয়েছে। তাদের কথা তৃণমূল শুনেনি। গত নির্বাচনেও প্রথম তিন ধাপে কিন্তু বিএনপিই বেশি সংখ্যা জিতেছিল। তাদের মধ্যে অনেকেই এবারও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ