Foto

বাংলাদেশ ক্রিকেটার মাশরাফির জীবনী


নিজের জীবনের নানা ঘাত-প্রতিঘাত-প্রত্যাবর্তন নিয়ে লেখা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। আজ সোমবার খুলনায় ‘মাশরাফি’ নামের বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এর লেখক ক্রীড়া সাংবাদিক দেবব্রত মুখোপাধ্যায়। নতুন প্রজন্ম তাঁর বারবার আঘাতপ্রাপ্ত ক্যারিয়ার থেকে কিছুটা শিখলেই নিজেকে সার্থক মনে করবেন নড়াইল এক্সপ্রেস।


মাশরাফি বলেন, আমি ওয়ার্ল্ডের (পৃথিবী) এমন কোনো বড় সুপারস্টার না। বাট (কিন্তু) আমি আমার জীবনে যে কঠিন মুহূর্তগুলোকে দেখেছি, পৃথিবীর অনেক বড় সুপারস্টারও এ মুহূর্তগুলোকে দেখেননি।

জাতীয় দলের এ অধিনায়ক বলেন, আমি যেটা লিখতে চাই সেটা যদি আমি ইনশাআল্লাহ শেষ করতে পারি, একটা জিনিস মেক শিওর (নিশ্চিত) করতে পারি, এখানে কোনো কন্ট্রোভার্সিয়াল (বিতর্কিত) থাকুক আমি চাই না। আমার বইটা যদি আমি বের করি, তবে সেখানে কোনো সেল বা টাকা-পয়সা এসবের কোনো উদ্দেশ্য থাকবেই না। অনুপ্রেরণা, বাংলাদেশের যেসব তরুণ প্লেয়ার উঠে আসবে তারা যেন অন্তত বইটা পড়ে চিন্তা করে যে জীবনের শেষ কোথাও নেই।

২০০১ সালের ৮ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক হয় মাশরাফির। একই বছর ২৩ নভেম্বর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষেই ওয়ানডে ক্রিকেটে জাতীয় দলে ঢোকেন তিনি। এই দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি বেশ কয়েকবার ইনজুরির কারণে জাতীয় দলের মূল স্কোয়াড থেকে ছিটকে পড়েন, পরে আবারও ফিরে আসেন। এ মুহূর্তে তিনি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়কের দায়িত্বে রয়েছেন।

Facebook Comments

" জীবনী " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ