Foto

প্রার্থীদের হলফনামা খতিয়ে দেখতে টিআইবির আহ্বান


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থীর হলফনামায় সম্পদের যে বিবরণ দিয়েছেন, তা খতিয়ে দেখার আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। কোনো প্রার্থীর সম্পদে অসামঞ্জস্যতা বা দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে দুর্নীতি দমন কমিশন ও নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বানও জানিয়েছে জার্মানভিত্তিক দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।


নির্বাচনে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্রের সঙ্গে একটি হলফনামা জমা দেন, যেখানে তাদের সম্পদ ও আয়-ব্যয়ের তথ্য থাকে। এই হলফনামা প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন।

সোমবার এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, অনেক প্রার্থী বা তার পরিবারের অর্জিত সম্পদ পূর্ববর্তী নির্বাচনে জমা দেওয়া সম্পদের তুলনায় বহু গুণে বৃদ্ধি পেয়েছে, যা আইন ও বিধিসম্মত কিনা তা খতিয়ে দেখা অপরিহার্য।

“নির্বাচন কমিশনের উচিত এসব সম্পদ বিবরণীর যথার্থতা ও নির্ভরযোগ্যতা যাচাই করে সম্পদের উৎস সম্পর্কে নিরপেক্ষভাবে নিশ্চিত হওয়া এবং আইনের কোনো ব্যত্যয় ঘটে থাকলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা।”

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “এ ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির পরিচয় বা দলীয় অবস্থান নির্বিশেষে এবং কোনো ধরনের অনুরাগ-বিরাগের বশবর্তী না হয়ে কাজ করতে হবে।”

দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ সম্প্রতি সাংবাদিকদের বলেছেন, সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের হলফনামা খতিয়ে দেখে অনিয়ম পাওয়া গেলে দুদক থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যানের বক্তব্য আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে। তবে আমরা মনে করি জনপ্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার প্রেক্ষিতে প্রার্থীদের সম্পদের উৎস ও তুলনামূলক বৃদ্ধির হার যাচাই বাছাই করে কোনো অনিয়ম বা অসামঞ্জস্যতা পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ভোটারদের সামনে তার দুর্নীতির খতিয়ান তুলে ধরা জরুরি।”

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ