Foto

পৃথিবীটাই তোমাদের জন্য খোলা কিশোর ফুটবলারদের বললেন সালাউদ্দিন


নেপালে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপাজয় কিশোর ফুটবল দলকে নিয়ে সবার অনেক আশা। কিন্তু আশা থাকলেই তো হয় না, তার জন্য চাই সঠিক পরিকল্পনা। খেলোয়াড়দের নিজেদের প্রচেষ্টাও একটা বড় ভূমিকা রাখে এখানে। দেশের ফুটবলের অভিভাবক হিসেবে কাজী সালাউদ্দিন আজ সবাইকে ডেকেছিলেন ফেডারেশনে। তাদের উদ্দেশে অনেক কিছুই বলেছেন। জানিয়ে দিয়েছেন, বড় ফুটবলার হতে একেকজনকে কতটা কষ্ট করতে হবে।


ফুটবলারদের শুভেচ্ছা জানিয়ে সালাউদ্দিন বলেছেন, তোমরা এই টুর্নামেন্ট জিততে যে পরিমাণ কষ্ট করেছ, যদি বড় খেলোয়াড় হতে চাও, তার শতগুণ বেশি কষ্ট করলে হবে না, করতে হবে হাজার গুণ বেশি কষ্ট। আমি চাই তোমরা সবাই বিশ্বমানের ফুটবলার হও।
খেলোয়াড়দের বড় হওয়ার পথ নকশাটা বাতলে দিয়েছেন তিনি, তোমরা কিন্তু এখন ফুটবলার হওয়া শুরু করেছ। স্কুলের ওয়ান-টু বা এ, বি গ্রেডে আছ। এ আর জেডের মধ্যে কিন্তু অনেক পার্থক্য সেই পার্থক্যটা ঘোচাতে হবে কষ্ট করে।
খেলোয়াড়দের টাকার হাতছানিতে না পড়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাফুফে সভাপতি, তোমাদের আগামী তিন-চার বছর ভোর থেকে রাত পর্যন্ত ফুটবল নিয়ে ভাবতে হবে। এমনটা যদি কর, তাহলে খেলা ছাড়ার সময় ১০-২০ কোটি টাকা নিয়ে যেতে পারবে। তোমাদের অনেকের কাছে এসে অনেক ক্লাবই হয়তো ১-২ লাখ টাকা দেবে। কিন্তু এই টাকা নিয়ে অতীতে অনেক খেলোয়াড়ই নষ্ট হয়ে গেছে। তোমাদের আগামী ৩-৪ বছর কষ্ট করে ট্রেনিং করতে হবে। তাহলে তোমরা অনেক টাকা কামাতে পারবে। এটাই তোমাদের লক্ষ্য। তোমরা ভালো ট্রেনিং করলে, ৫০ লাখ থেকে ১ কোটি টাকা কামালে আমাদের জাতীয় দল লাভবান হবে। তোমাদের ফুটবলার হতে হবে। ফুটবল নিয়ে সারাক্ষণ ভাবতে হবে। একটা ফুটবলারের সেরা সময় ৩০-৩২। এই সময়টা ফুটবলকে দাও। যা যা শখ আছে, সেগুলো মেটানোর জন্য ভবিষ্যতে অনেক সময় পাবে।
এই কিশোর ফুটবলারদের কাছে গোটা দুনিয়াটাই খোলা এমনটাই বলেছেন সালাউদ্দিন, আজ বাংলাদেশের একজন ফুটবলার বছরে ৪০-৪৫ লাখ টাকা আয় করে। তোমরা যদি আরও ভালো হও, তাহলে ভারতে খেলতে পারবে, সেখানে তোমরা সহজেই দুই কোটি টাকা পাবে। নিজেকে আরও ওপরে নিলে থাইল্যান্ড, মধ্যপ্রাচ্য। সেখানে ৪ কোটি থেকে ১০ কোটি টাকা অপেক্ষা করে আছে তোমাদের জন্য। তোমাদের জন্য তো ফুটবলের এই দুনিয়াটা খোলাই।

Facebook Comments

" ফুটবল সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ