Foto

নৈশপ্রহরীকে বেঁধে বাজারে ডাকাতি


রংপুরের পীরগাছায় দুটি বাজারের ৯টি দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। বুধবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার কান্দিরহাট ও নটাবাড়ি বাজারে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।


এতে টাকাসহ প্রায় দশ লাখ টাকার মালামাল লুট হয়েছে বলে দাবি করেছেন দোকান মালিকরা। এ ঘটনায় ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

জানা গেছে, উপজেলার কান্দিরহাট বাজারের নৈশপ্রহরী এছাহাক আলীকে পিটিয়ে মুখে টেপ লাগিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে একদল ডাকাত। এ সময় ওই বাজারের শামছুল আলমের শাহীন স্টোর, আলা মিয়ার আঁখি স্টোর, গণি মিয়ার ফারুক স্টোর, রাকু মিয়ার টিনের দোকান, জাকির হোসেনের গালামালের দোকান ও কালাম মিয়ার দোকানে তালা ভেঙে ডাকাতি করা হয়।

একই ডাকাত দল পার্শ্ববর্তী তাম্বুলপুর ইউনিয়নের নটাবাড়ি বাজারে আবদুল হাই, আফজাল হোসেন ও মাহবুব মাস্টারের দোকানেও লুটপাট করে। ডাকাত দল ৯টি দোকান থেকে টাকাসহ প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়। পীরগাছা থানার ওসি রেজাউল করিম জানান, খবর পেয়ে দুপুরে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ডাকাতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
এদিকে ফেনীর সোনাগাজীতে পৃথক ঘটনায় বৃহস্পতিবার গভীর রাতে দুই প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। জাফর উল্যাহ ও মো. ইউনুছ নামে দুই গ্রামবাসীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেছে ডাকাত দল। সদর ইউনিয়নের পশ্চিম সুজাপুর গ্রামের মাওলানা আবদুস শুক্কুরের নতুন বাড়ির সৌদি প্রবাসী আবু বক্কর ছিদ্দিক মানিক ও পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের চরগণেশ গ্রামের কমর উদ্দিন হাজীবাড়ির কুয়েত প্রবাসী বেলায়েত হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও এলাকাবাসী জানান, রাত সাড়ে ৩টার দিকে ১৫-২০ জনের মুখোশধারী সশস্ত্র ডাকাত দল আবু বক্কর ছিদ্দিক মানিকের দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে পরিবারের সবাইকে বেঁধে রেখে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। এ সময় সংঘবদ্ধ ডাকাত দল আলমারি ভেঙে ৭ ভরি স্বর্ণ ও ৭২ হাজার টাকা লুটে নেয়। অপরদিকে রাত ৩টার দিকে ১৫-২০ জনের সশস্ত্র ডাকাত দল বেলায়েত হোসেনের কলাপসিবল গেটের তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে দেড় ভরি স্বর্ণ ও পাঁচ হাজার টাকা লুটে নেয়।

 

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ