Foto

নন্দীগ্রামে পাষণ্ড স্বামীর নির্যাতনে চোখ হারাতে বসেছেন স্ত্রী


বগুড়ার নন্দীগ্রামে যৌতুকের দাবিতে পিংকি রানী (২০) নামের এক গৃহবধূকে মারপিট করেছে তার স্বামী রমেন কুমার (২৮)। এতে পিংকির দুটি চোখ নষ্ট হতে বসেছে।


পিংকি উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রাম গ্রাম হিন্দু পাড়ার রবিন চন্দ্রর মেয়ে। এ ঘটনায় পুলিশ শুক্রবার দুপুরে নির্যাতনকারী স্বামী রমেন কুমার (২৮) ও তার মাকে আটক করেছে।

পিংকির কাকা বাবলু জানান, ২০১৮ সালে উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রাম গ্রাম হিন্দু পাড়ার মৃত নরেশ চন্দ্রের ছেলে রমেন কুমারের সঙ্গে পিংকির বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক বাবদ ২ লাখ ২০ হাজার টাকা দেওয়া হয়। এরপর থেকে আরও টাকার লোভ হয় রমেনের। এ কারণে স্ত্রী পিংকির ওপর কারণে-অকারণে নির্যাতন চালায় সে।

এরই এক পর্যায়ে গত বুধবার রাতে রমেন পিংকিকে বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলে। কিন্তু পিংকি অস্বীকৃতি জানালে তাকে বেদম মারপিট করা হয়। এতে তার দুই চোখে মারাত্মক আঘাত লাগে। যে কারণে তার চোখ নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার সকালে ঘটনাটি জানার পর আমরা প্রতিবেশীদের জানাই। তারা বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পিংকির স্বামী রমেন ও তার শাশুড়িকে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গৃহবধূ পিংকিকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার স্বামী ও শাশুড়ি পুলিশ হেফাজতের রয়েছে।"

 

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ