Foto

দেখে নিন ভ্রমণবান্ধব ১০ দেশের তালিকা


ভ্রমণের ক্ষেত্রে পৃথিবীর সবচেয়ে বন্ধুসুলভ দেশ হিসেবে স্বীকৃত হয়েছে অস্ট্রিয়া। সারা বিশ্বের ভ্রমণকারীদের পাঠানো ভ্রমণ অভিজ্ঞতার ওপর ভিত্তি করে এক জরিপ চালিয়ে পৃথিবীর সবচেয়ে ভ্রমণবান্ধব দেশের এই তালিকা তৈরি করেছে বুকিং ডট কম।


পোল্যান্ড এবং চেক রিপাবলিক যথাক্রমে এই তালিকার ২য় ও ৩য় স্থানে রয়েছে। এসব দেশের যেটাতেই আপনি যান না কেন, যে কোনো ব্যাপারে আপনার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবে সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

বিশ্ব বিখ্যাত সুরস্রষ্টা মোজার্টের স্মৃতিবিজড়িত অস্ট্রিয়া অথবা পোল্যান্ড কিংবা চেক রিপাবলিক, সবখানেই আপনার প্রয়োজনে আপনি নিশ্চিন্তে নির্ভর করতে পারেন সেখানকার মানুষের ওপর। আপনি যদি তাদের জিভে জল আনা স্থানীয় খাবার উপভোগ করতে পারেন, তাদের বাসায় তৈরি করা মদ উপভোগ করতে পারেন, পাথরের খোয়া দিয়ে তৈরি মধ্যযুগীয় রাস্তাগুলোতে চষে বেড়াতে চাইলে সেখানেও সঙ্গ পাবেন তাদের। যদি চান উত্তর-পূর্ব পোল্যান্ডের গহীন জঙ্গলে হারিয়ে যেতে অথবা চুপচাপ প্রাগের সবচেয়ে সুন্দর পার্কগুলোতে বসে সুর্যাস্ত দেখতে, নিশ্চিন্তে তা করতে পারেন।

বন্ধুসুলভ জনগণের পাশাপাশি এই ৩টি দেশে দেখার মতোও আছে অনেককিছু। বছরের পর বছর ধরে প্রাগ কিংবা ক্রাকোউ এর মতো শহরগুলো হাজার হাজার পর্যটকদের আকৃষ্ট করে আসছে। অন্যদিকে, এই ৩টি দেশ, ইউরোপের সবচেয়ে নিরাপদ দেশ হিসেবেও স্বীকৃত। এই দেশগুলোতে ভ্রমণের জন্য খরচের পরিমাণটাও ইউরোপের মধ্যে সবচেয়ে কম।

আর যে বৈশিষ্ট্যটি এই দেশগুলোকে ইউরোপের অন্যান্য দেশ থেকে আলাদা করেছে সেটা হলো এই দেশগুলোর মানুষেরা কথা বলতে স্বাছন্দ্য বোধ করে, যা স্বল্পমেয়াদি বা দীর্ঘমেয়াদি পর্যটকদের জন্য এই দেশগুলোতে এক স্বস্তিদায়ক জীবনধারণ নিশ্চিত করে।

এছাড়াও অন্য যে দেশগুলো ভ্রমণবান্ধব দেশের তালিকায় সেরা দশে স্থান করে নিয়েছে সেগুলো হলো যথাক্রমে - নিউজিল্যান্ড, তাইওয়ান, রোমানিয়া, হাঙ্গেরি, আয়ারল্যান্ড, সার্বিয়া এবং গ্রিস।


অন্যদিকে বুকিং ডট কমের সেরা ভ্রমণবান্ধব স্থানের তালিকায় রয়েছে তুরস্কের গরেমি, ক্রোয়েশিয়ার স্লাঞ্জ, তাইওয়ানের এলুয়ানবি, কানাডার নায়াগ্রা লেক এবং নিউজিল্যান্ডের টেকাপো লেক।

উল্লেখ্য, ১৯৯৬ সালে নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডামে প্রতিষ্ঠিত ভ্রমণ বিষয়ক ই-কমার্স সাইট বুকিং ডট কমের যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে সারা বিশ্বের ৭০টি দেশে প্রতিষ্ঠানটির ১৭ হাজার কর্মী রয়েছে। ২০১৮ সালের ভ্রমণবান্ধব দেশের তালিকা প্রকাশের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি ৭ম বারের মত এই তালিকা প্রকাশ করলো।

Facebook Comments

" ভ্রমণ ও প্রকৃতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ