Foto

তদন্তের তথ্য ফাঁসের দায়ে দুদকের এনামুল বাছির সাময়িক বরখাস্ত


পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানের কাছে তথ্য ফাঁস করায় দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় প্রধান কার্যালয়ে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ এ তথ্য জানান।


দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ঘুষ লেনদেনের ঘটনায় কমিশনের সচিব দিলওয়ার বখতকে প্রধান করে রবিবার তিন সদস্যের উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। সেই কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অর্থাৎ আজ প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ এনামুল বছিরকে সাময়িকভাবে বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ইকবাল মাহমুদ আরও বলেন, ডিআইজি মিজানুর রহমানের দুর্নীতির তদন্ত থেকে এনামুল বছিরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কমিশনের তথ্য পাচার এবং শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে।

এদিকে, ডিআইজি মিজানের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এতদিন জব্দ থাকলেও বিপুল এই টাকার উৎসের তদন্তে একটি কমিটিও গঠন করেছে দুদক।

জানা গেছে, গত বছর নারী নির্যাতনের অভিযোগে দায়িত্ব থেকে প্রত্যাহার করা হয় পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানকে। এরপর তার বিপুল পরিমাণ অবৈধ সম্পদের তথ্য প্রকাশ হলে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এই তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির। তবে তদন্ত চলাকালেই প্রাপ্ত তথ্য অভিযুক্তের কাছে চালান করে দিয়ে আপসরফার মাধ্যমে দুই দফায় ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেন তিনি। ডিআইজি মিজান নিজেই এমন অভিযোগ করেছেন দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরের বিরুদ্ধে।

Facebook Comments

" জাতীয় খবর " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ