Foto

জামায়াতের অভিসন্ধি বোঝার অপেক্ষায় কাদের


আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগের মধ্য দিয়ে জামায়াতে ইসলামী কোনো চাল চালছে কি না, তা বুঝেই পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।


তবে সরকারের এই মন্ত্রী স্পষ্ট করেছেন, জামায়াত একাত্তরের ভূমিকার জন্য ক্ষমা চাইলেও যুদ্ধাপরাধীদের যে বিচার চলছে, তা অব্যাহত থাকবে।

যুদ্ধাপরাধের বিচার ও নিবন্ধন হারিয়ে চাপে থাকা জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল রাজ্জাক শুক্রবার যুক্তরাজ্য থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

একাত্তরে দলের ভূমিকার জন্য ক্ষমা চাওয়ার কথা বলেছেন রাজ্জাক। সেই সঙ্গে জামায়াতকে নতুন আঙ্গিকে সাজানোর কথাও বলেছেন তিনি।

শনিবার আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এলে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদককে জামায়াত বিষয়ে নানা প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।

জামায়াত ক্ষমা চাইলে আওয়ামী লীগ তা সাধুবাদ জানাবে কি না- এই প্রশ্নে কাদের বলেন, "এটা এখনও আলাপ- আলোচনার মধ্যে, গুজব-গুঞ্জনের মধ্যে সীমিত আছে। তারা অফিসিয়ালি কিছু বলেনি, এপোলাইজ করেনি।"

"তবে যারা মানবতাবিরোধী, যুদ্ধাপারাধের সঙ্গে যুক্ত, তাদের যে বিচার কাজ চলছে, এটা কিন্তু বন্ধ হবে না।"

রাজ্জাকের পদত্যাগের বিষয় কিভাবে দেখছেন- জানতে চাইলে তিনি বলেন, "এটা তার ব্যক্তিগত, তাদের দলের সিদ্ধান্তের উপর বিষয়টি নির্ভর করছে। তাদের ইনটেশনটা এখনও ক্লিয়ার না। আগে পরিষ্কার হোক।"

জামায়াত নতুন নামে এলে আওয়ামী লীগ স্বাগত জানাবে কি না- প্রশ্ন করা হলে কাদের বলেন, "আওয়ামী লীগ কোনো সিদ্ধান্তই এখনও নেয়নি।

"তবে নতুন বোতলে পুরাতন মদ যদি আসে, তাহলে পার্থক্য কোথায়? জিনিস তো একটাই। তাদের আদর্শটা ঠিক আছে, নতুন নামে একই আদর্শ আসবে, তাহলে পার্থক্যটা কোথায়?

"সেটা দেখতে হবে, এই বিষয়গুলো দেখতে হবে। এখন নানা কথা মিডিয়ায় আসছে। এগুলো পরিষ্কার হওয়া দরকার। পরিষ্কার হওয়ার আগে আমরা কেন মন্তব্য করতে যাব?"

জামায়াত নিষিদ্ধ হওয়ার আশঙ্কায় নতুন কৌশল নিচ্ছে কি না- এই প্রশ্নে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, "কৌশলও হতে পারে। স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর ক্ষমা চাওয়ার বিষয় কেন এল, সেটাও কোনো কৌশল কি না, ভেবে দেখতে হবে।"

Facebook Comments

" রাজনীতি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ