Foto

জন্মদিনে উপহারে চমকে গেলেন ন্যান্সি


জন্মদিনে স্বামী নাজিমুজ্জামান জায়েদের কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা মূল্যের উপহার পেয়ে রীতিমতো চমকে গেলেন গায়িকা নাজমুন মুনিরা ন্যান্‌সি। আজ বৃহস্পতিবার সকালে এই উপহার পেয়েছেন তিনি। পাঁচ বছরের সংসারজীবনে এ ধরনের ঘটনা এবারই প্রথম ঘটেছে। স্বামীর কাছ থেকে মূল্যবান এই উপহার পেয়ে উচ্ছ্বসিত ন্যান্‌সি।


২৫ লাখ টাকা মূল্যের কী সেই উপহার—জানতে চাইলে ন্যান্‌সি বলেন, ‘ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন এলাকায় আমার স্বামীর ৫ শতাংশ জমি ছিল। এটি তাঁর কেনা প্রথম জমি। সেই জমিটি সে আজ বৃহস্পতিবার সকালে দানপত্র করে দেয়। জন্মদিনের সকালে স্বামীর কাছ থেকে এমন একটি উপহার পাব ভাবতেই পারিনি। সত্যি কথা বলতে, আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।’

ময়মনসিংহ শহরের ঢোলাদিয়া মৌজায় ৫ শতাংশ জমির সরকারি মূল্য আনুমানিক ২৫ লাখ টাকা।

ন্যান্‌সি জানান, তাঁর স্বামী খুব ইন্ট্রোভার্ট। তিনি যেমন মন খুলে সব বলেন, কিন্তু স্বামী ঠিক তাঁর উল্টো। মুখ ফুটে বলতে চান না। এবারের জন্মদিনে একটা বড় ধরনের পরিবর্তন চোখে পড়েছে, যা দেখে রীতিমতো অবাক হয়েছেন।

ন্যান্‌সি বলেন, ‘আমি গতকাল বিকেলে জায়েদকে বললাম, এবারের জন্মদিনে আমাকে কী দেবে? তখন সে বলল, তোমাকে কী দেব? এখন তো সন্তানদের। মেয়েদের দেওয়ার সময়। শুনেই মেজাজ খারাপ হয়ে যায়। সারা দিন শেষে রাতের বেলা জায়েদ বাসায় কেক নিয়ে হাজির। কেকের ওপরে লেখা, “হ্যাপি বার্থ ডে সুইটহার্ট”। আমার তো বিশ্বাস হচ্ছিল না। এই মানুষটা কখনোই আমারে সুইটহার্ট বলে ডাকে না। এরপর আমি আমার ছোট ভাইয়ের কাছে জানতে চাইলাম, এই কেকের ওপরের লেখাটা কি তোর দুলাভাইয়ের ভাবনা, নাকি তোর? তখন সে বলল, “না আপু, এটা দুলাভাইয়েরই লেখা।” আর সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার জন্য খুব তাড়াহুড়ো করছিল। আমি বললাম, কেন এতা তাড়াহুড়ো? আজ একটু দেরি করে গেলে কি হয় না? বলল, “রেজিষ্ট্রি অফিসে আমার একটু কাজ আছে।” কী কাজ? “আরে কাজ আছে বললাম না।” তখনো আমার মাথায় আসে নাই কিছু। বেলা ১১টার পর একটা কাগজ পাঠিয়ে বলল, “দেখো তো, সব তথ্য ঠিক আছে কি না? কোনো সংশোধন করতে হবে কি না?” খাম খুলে দেখি, জমির দানপত্রের কাগজ! আমি বললাম, মানে কী? তখন আমাকে বলল, “পরশু দিন রেজিষ্টি অফিসে আমি আসছিলাম, সেদিনই জমির দানপত্র ফাইনাল করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু সাবরেজিস্ট্রার না থাকায় হয়নি। আজকে তিনি আসছেন, তাই করে ফেললাম।” এরপর আমি আর কিছু বলার মতো শব্দ খুঁজে পাচ্ছিলাম না।’

ন্যান্‌সির স্বামী নাজিমুজ্জামান জায়েদ প্রথম আলোকে বলেন, ‘আগামী বছরে আমাদের সংসারজীবনের ৬ বছর পূর্তি হবে। সংসারজীবনের শুরু থেকে ন্যান্‌সির কাছ থেকে অসীম ভালোবাসা পেয়ে আসছি। ন্যান্‌সির জন্মদিনে আমার এই উপহার আসলে তেমন কিছুই না। এটাকে জাস্ট ভালোবাসার একটা স্মারক বলতে পারেন। ন্যান্‌সি প্রায়ই দুষ্টামি করে আমাকে বলে, বিশেষ দিনগুলোতে তুমি আমাকে কিছু দাও না কেন? ভাবলাম, এর চেয়ে সুন্দর সময় আর কীই–বা হতে পারে। সামান্য উপহারে প্রিয় মানুষের উচ্ছ্বাস আমাকে আনন্দিত করেছে।’

এ বছরের শুরুর দিকে ময়মনসিংহ শহরের ঢোলাদিয়া মৌজায় ৫ শতাংশের এই জমি কিনেছিলেন নাজিমুজ্জামান জায়েদ। কয়েক দিন ধরেই মনে মনে ভেবে রেখেছিলেন, জমিটি স্ত্রী ন্যান্‌সির জন্মদিনে উপহার হিসেবে দেবেন। যেই চিন্তা সেই কাজ। আজ বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে জমির দানপত্র স্ত্রীর হাতে তুলে দেন তিনি।

Facebook Comments

" বিনোদন " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ