Foto

খাশুগজির ঘাতকদের সাজা চাই

সাংবাদিক জামাল খাশুগজি হত্যার ঘটনাকে পরিকল্পিত ‘নির্মম হত্যাকাণ্ড’ আখ্যা দিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিজেপ তায়িপ এরদোয়ান এর জন্য দায়ীদের সাজা দাবি করেছেন। তিনি বলেন, খাশুগজির ঘাতকরা যত উচ্চ পর্যায়েরই হোক তাদের সবাকেই শাস্তি পেতে হবে। সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নাম না নিলেও এরদোয়ান বলেন, খাশুগজিকে হত্যার নির্দেশ যিনি দিয়েছেন তাকেও জবাবদিহি করতে হবে। ক্রাউন প্রিন্সই সৌদি সাংবাদিক খাশুগজিকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন বলে ধারণা মার্কিন কয়েকজন আইনপ্রণেতার।

এরদোয়ান বলেন, “সৌদি আরব প্রশাসন খাশুগজি হত্যার ঘটনা স্বীকার করে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে। এখন আমরা আশা করব এ ঘটনায় উপর মহল থেকে নিচ পর্যন্ত দায়ী সবার মুখোশ তারা খুলে দেবে এবং তাদেরকে সমুচিত সাজা দেবে।”

“হত্যার নির্দেশ দেওয়া থেকে শুরু করে সে নির্দেশ পালন করা ব্যক্তিটি পর্যন্ত সবাইকেই জবাবদিহির আওতায় আনতে হবে সৌদি আরবকে।”

গত ২ অক্টোবর খাশুগজি তুরস্কে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ঢুকে নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই তুরস্ক সৌদি চররা তাকে খুন করেছে বলে দাবি করে এসেছে। তবে সৌদি আরব প্রথমে তা অস্বীকার করে এবং ঘটনার ১৭ দিন পর খাশুগজি খুন হওয়ার কথা স্বীকার করে। কিন্তু খুনের ঘটনা নিয়ে দেশটি একাধিকবার বিবৃতি পাল্টেছে। মরদেহ কোথায় আছে তাও জানা নেই বলে জানিয়েছে সৌদি আরব।

তবে এরই মধ্যে খাশুগজির লাশের টুকরো পাওয়া যাওয়ার খবর শোনা যাচ্ছে গণমাধ্যমে। তুরস্কেরও কয়েকটি গণমাধ্যমে খাশুগজির দেহাংশের খোঁজ পাওয়ার খবর এসেছে।

ব্রিটিশ সম্প্রচার মাধ্যম স্কাই নিউজ বলছে, ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসাল জেনারেলের বাসভবনের বাগানে খাশুগজির লাশের অংশবিশেষ পাওয়া গেছে। খুনের পর খাশুগজির লাশ টুকরো টুকরো করা হয় এবং মুখমণ্ডল বিকৃত করে ফেলা হয় বলে জানানো হয়েছে খবরে।

ওদিকে, দ্য মিরর পত্রিকা তুরস্কের গণমাধ্যমগুলোর খবরের বরাত দিয়ে বলেছে, তুরস্কের বিরোধীদলীয় নেতা ডগু পেরিনেক বলেছেন, ইস্তাম্বুলে সৌদি কনসাল জেনারেলের বাসভবনের বাগানে কুয়ার মধ্যে খাশুগজির দেহাংশ পাওয়া গেছে। তুরস্কের হারবেলার টিভি চ্যানেল এ খবর দেয়।

তুরস্কে আরেকটি গণমাধ্যমের খবরেও সৌদি কনসাল জেনারেলের বাড়িতেই খাশুগজির দেহাংশ পাওয়া যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

ডেইলী সুরমা

all bangla newspapers

ডেইলী সুরমা ডট কমে প্রকাশিত নিউজ সমূহ আমাদের নিজস্ব নিউজ রিপোর্টারের পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট , ব্লগ ওয়েবসাইট, বাংলা এবং ইংরেজী ওয়েবসাইটের সূত্র থেকেও নেয়া হয়েছে। আমাদের নিজস্ব রিপোর্টের বাহিরে অন্য নিউজগুলোর জন্য কোন প্রকার দ্বায় ডেইলী সুরমার নেই। প্রতিটি নিউজে নিউজের সোর্স দেয়া আছে। তদাপি কোন প্রকার নিউজ নিয়ে শংকা থাকলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন। আমরা নিউজ রিমোভ করে দেব। তাছাড়া ডেইলী সুরমায় আপনি আপনার আসে পাশের ঘটে যাওয়া ঘটনা প্রকাশ করতে আমাদের ইমেল করুন বা যোগাযোগ পাতা থেকে যোগাযোগ করুন..

Facebook Comments

সমশ্রেণীর সংবাদ