Foto

খাশুগজিকে হত্যার নির্দেশ দেননি সৌদি যুবরাজ


সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশুগজিকে হত্যায় সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিল সালমান জড়িত বলে যে অভিযোগ আছে এবার তা অস্বীকার করেছেন দেশটির এক সরকারি কৌঁসুলি।


বিবিসি জানায়, খাশুগজিকে হত্যার নির্দেশ যুবরাজ নন বরং একজন উর্ধ্বতন গোয়েন্দা কর্মকর্তা দিয়েছিলেন বলেই জানিয়েছেন এই কৌসুঁলি।

গত ২ অক্টেবর তুরস্কে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ঢোকার পর আর বেরিয়ে আসেনি খাশুগজি। তার হত্যাকাণ্ড নিয়ে সৌদি আরব একাধিকবার তাদের বিবৃতি পাল্টেছে। সবশেষে সৌদি আরব খাশুগজি হত্যা পরিকল্পিত ছিল বলেও স্বীকার করে।

বৃহস্পতিবার সরকারি সৌদি প্রেস এজেন্সিতে এক বিবৃতিতে দেশটির কৌসুলি সৌদ আল মোজেব জানান, ওই খুনের ঘটনায় ১১ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে এবং সৌদি আরব ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড চাইছে।

ওদিকে, মোজেবের ডেপুটি শালান বিন রাজিহ শালান বৃহস্পতিবারেই রিয়াদে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, খাশুগজিকে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সৌদি আরবের উপ গোয়েন্দা প্রধান জেনারেল আহমেদ আল আসিরি ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে যে আলোচক দলটিকে পাঠিয়েছিলেন সে দলের প্রধানই হত্যার নিরদেশ দিয়েছিলেন। তদন্ত থেকে এ তথ্য বেরিয়ে এসেছে বলে জানান তিনি।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এ ব্যাপারে কিছু জানতেন না বলে শালান দাবি করেন।

২ অক্টোবরে সৌদি এজেন্টদের সঙ্গে ধস্তাধস্তির পর খাশুগজিকে ইঞ্জেকশন দেওয়া হয় এবং তার মৃত্যুর পর দেহ টুকরো করা হয়। এরপর তা সরিয় ফেলা হয়। তার দেহাবশেষ কোথায় আছে তা জানতে তদন্ত চলছে বলেও জানান শালান।

তবে খুনের ঘটনায় যারা অভিযুক্ত হয়েছে তাদের পরিচয় জানান নি তিনি।

সৌদি যুবরাজ নিজেও খাশুগজি হত্যাকান্ডে তার কোনরকম ভূমিকা থাকার কথা বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন। যদিও সমালোচকরা বলছেন তিনি এ খুনের ঘটনা জানতেন না তা হতে পারে না।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ