Foto

কানাডায় গ্রেপ্তার হুয়াওয়ের নির্বাহীর মুক্তি দাবি করেছে চীন


কানাডায় গ্রেপ্তার হওয়া হুয়াওয়ে টেলিকম জায়ান্টের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা মেং ওয়াঝৌকে অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছে চীন। কানাডার ভ্যাঙ্কুভারে ১ ডিসেম্বর হুয়াওয়ের ডেপুটি চেয়ারম্যান ও প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা মেংকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং তাকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছেও হস্তান্তর করা হতে পারে বলে জানিয়েছে বিবিসি। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ কি তা জানা যায়নি। তবে ইরানের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের সন্দেহে হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত চালাচ্ছে।


চীন অটোয়া এবং ওয়াশিংটন উভয়কেই মেং কে আটকের কারণ পরিষ্কার করে জানানোর আহ্বান জানিয়েছে। তাকে আটক করে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হয়েছে বলেই চীন মনে করছে।

চীনের পররাষ্ট্রন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র গেং শুয়াং বৃহস্পতিবার বলেছেন, বেইজিং আলাদা আলাদাভাবে যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডা উভয়দেশকেই অবিলম্বে মেং কে আটকের কারণ পরিষ্কার করে জানানোসহ তাকে মুক্তি দিতে বলেছে।

হুয়াওয়ে জানিয়েছে, অভিযোগ সম্পর্কে তাদের কাছে তেমন কোনো তথ্য নেই এবং মেং অন্যায় কোনো কিছু করেছেন বলেও তাদের জানা নেই। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র সাংবাদিকদের বলেন, “কোনো কারণ না জানিয়ে এভাবে কাউকে গ্রেপ্তার করাটা তার মানবাধিকারের লঙ্ঘন।”

যদিও বেইজিংয়েরও এভাবে কোনোকিছু না জানিয়ে মানুষজনকে গ্রেপ্তার করার বহু নজির আছে এবং এ কারণে মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো প্রায়শই চীনের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ করে থাকে।

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের চলমান বাণিজ্য যুদ্ধের উত্তেজনার মধ্যেই মেং গ্রেপ্তারের এ ঘটনা ঘটল। এতে দুদেশের মধ্যে বড় ধরনের কূটনৈতিক সংঘাতের ঝুঁকি সৃষ্টি হয়েছে। অশুভ ছায়া পড়েছে চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার আপাতত বাণিজ্যযুদ্ধ বিরতির সম্ভাবনাতেও।

কানাডা বলেছে, মেং তার গ্রেপ্তারের বিষয়ে বিস্তারিত কিছু প্রকাশ না করার চেষ্টা নিয়েছেন এবং আদালত তা মঞ্জুর করায় তারা এ ব্যাপারে বেশিকিছু জানাতে পারছে না।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ