Foto

কাকা বললেন, মরিনহো একটা ‘সমস্যা’


রিয়ালে থাকতে দুটি বড় ‘সমস্যা’র মুখোমুখে হয়েছিলেন কাকা। চোট ও কোচ মরিনহো। প্রথমটি যে কোনো খেলোয়াড়ের জীবনেই থাকে। পরের সমস্যা নিয়ে কথা বলেছেন ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই মিডফিল্ডার


ব্রাজিলের সাবেক তারকা ফুটবলার রিকার্ডো কাকা বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে পেয়েছেন অনেক কিছু। তাঁর ভাষায়, ব্যালন ডি’অর জেতা সর্বশেষ ‘মানুষ’ তিনি। কারণ মেসি-রোনালদো তো আর মানুষ নন! এমন বিনয়ী মানুষের মনে বড় এক দুঃখ আছে। কাকার ক্যারিয়ারে অন্যতম দুঃসময় হিসেবে দেখা হয় রিয়াল মাদ্রিদে চার বছর সময়কে। কাকা নিজেও বলেছেন, মাদ্রিদের সময়টাই তাঁকে ধ্বংস করে দিয়েছিল! এবার একটু খোলাসা করে বললেন, কেন ধ্বংস হয়েছিল তাঁর ক্যারিয়ার।

মাদ্রিদে থাকতে দুটি বড় সমস্যার মুখোমুখে হয়েছিলেন কাকা। চোট ও কোচ মরিনহো। প্রথমটি যে কোনো খেলোয়াড়ের জীবনেই থাকে। আর ‘মরিনহো’ সমস্যা টা হয়তো বিরল। যদিও অনেক তারকা ফুটবলারের ক্যারিয়ারে পর্তুগিজ কোচ এক দুর্বিষহ নাম। কিছুদিন আগে ইকার ক্যাসিয়াস তো মরিনহোর দিকে ইঙ্গিত করেই বলেছিলেন, ‘এই মানুষটা অবসর নেয় না কেন?’

গত বছর ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছেন কাকা। মাদ্রিদ ছাড়ার ছয় মৌসুম পর ফেলে আসা সেই সময় নিয়ে মুখ খুলেছেন ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ জেতা এই তারকা। তখনকার কোচ মরিনহোর দিকে তুলেছেন আঙুল, ‘প্রথম বছরে আমি কোমরের চোটে পড়েছিলাম। অস্ত্রোপচার করে সুস্থ হয়ে ছয় মাস পর ফিরলে কোচ মরিনহোর সমস্যায় পড়ি।’

এসি মিলান থেকে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছিলেন তারকা। মিলানের নয়নমণি রিয়াল সমর্থকদেরও পছন্দের খেলোয়াড়ে পরিণত হয়েছিলেন। কিন্তু রিয়ালের কোচ মরিনহো কাকাকে বেশি সুযোগ দিতেন না, ‘সে আমার জন্য একটু কঠিন কোচ ছিল, কিন্তু আমাদের সম্মানের সম্পর্ক ছিল। যখনই ভাবতাম খেলার সুযোগ পাব, তখনই সে আমাকে অনুপযুক্ত ভাবত। আমি অনুশীলন করতাম, আমি সবটুকু ঢেলে দিতাম, ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনাও করতাম। কিন্তু তারপরও কোচের বিশ্বাস অর্জন করতে না পারায় বুঝতে পারলাম, তাঁর সঙ্গে কাজ করতে পারব না।’

মাঝে মাঝেই গণমাধ্যমে বের হয়ে আসে মরিনহোর বিধ্বংসী রূপ। এ সম্পর্কে কাকার মন্তব্য, ‘বিধ্বংসী অবস্থায় ক্যামেরার সামনে মরিনহোকে যেমন দেখা যায়, মরিনহো তেমনই। কিন্তু তিনি অত্যন্ত বুদ্ধিমান, খুব প্রস্তুত লোক। খুব প্রস্তুতি নিয়েই তিনি সাক্ষাৎকার দিয়ে থাকেন।’

কিছুদিন আগেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে বরখাস্ত হয়েছেন মরিনহো। একে তো মাঠে ইউনাইটেডের পারফরমেন্স ছিল যাচ্ছেতাই। এর সঙ্গে যোগ হয়েছিল খেলোয়াড়দের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের টানাপোড়েন।

Facebook Comments

" ফুটবল সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ