Foto

উদ্বোধনের অপেক্ষায় ফেনী সদর হাসপাতালের আইসিইউ-সিসিইউ


আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে ফেনীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট আধুনিক সদর হাসপাতালের আইসিইউ ও সিসিইউ বিভাগ। চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের পর বৃহত্তর নোয়াখালীর মধ্যে এটিই প্রথম কোনো সরকারি হাসপাতাল, যেখানে চালু হতে যাচ্ছে আইসিইউ ও সিসিইউ বিভাগ। চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনবল নিয়োগসহ ফেনী সদর হাসপাতালে আইসিইউ ও সিসিইউ ইউনিট স্থাপনের অনুমোদন দেন। সে সময় এ প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয় ১১ কোটি টাকা।


ফেনীর সিভিল সার্জন ও সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির জানান, প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্পের আওতায় পাওয়া বাজেটে আইসিইউ ও সিসিইউ ইউনিটে ১০টি করে শয্যা ও আনুষঙ্গিক সব যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে। কেন্দ্রীয়ভাবে স্থাপন করা হয়েছে অক্সিজেন লাইন। সব মিলিয়ে এখন কেবল আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অপেক্ষায় বিভাগটি।

হাপাতালের আইসিইউ ও সিসিইউ বিভাগ চালু হলে এ এলাকার মুমূর্ষু ও সংকটাপন্ন রোগীদের ভোগান্তি দূর হয়ে যাবে। এসব ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত রোগীকে জরুরি ভিত্তিতে ঢাকা কিংবা চট্টগ্রামে স্থানান্তর করা হয়।

আইসিইউ ও সিসিইউ বিভাগ ছাড়াও হাসপাতালের কিডনি ডায়ালাইসিস ইউনিট, গ্যাস্ট্রোলিভার ইউনিট ও কার্ডিওলজি ইউনিট স্থাপনের জন্য ৭০ কোটি টাকার বিশেষ বরাদ্দ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যেই বরাদ্দের ১০ কোটি টাকা পাওয়া গেছে বলে কর্তৃপক্ষ জানায়। বরাদ্দের বাকি টাকা বর্তমানে পাইপ লাইনে আছে বলেও জানা যায়। এ ছাড়া হাসপাতালের এক্স-রে মেশিন মেরামত বাবদ বরাদ্দ করা ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা এর মাঝেই পাওয়া গেছে।

বিশেষ বরাদ্দ থেকে পাওয়া টাকা থেকে এর মাঝেই হাসপাতালের নিরাপত্তার জন্য ১২০টি ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। সম্পন্ন হয়েছে কিডনি ডায়ালাইসিস ইউনিটের ৬০ শতাংশ কাজ।

ফেনী-২ আসনের সাংসদ, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য ও জেলা স্বাস্থ্য সেবা কমিটির সভাপতি নিজাম উদ্দিন হাজারী জানান, ফেনী সদর হাসপাতালে রোগীদের যথাযথ সেবা প্রদানের জন্য এরই মধ্যে বিশেষ বরাদ্দ আনা হয়েছে। সে টাকার সুষ্ঠু ব্যয় নিশ্চিত করতে নজরদারি করা হচ্ছে। শুধু হাসপাতালের উন্নয়ন নয় ফেনীতে একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপনের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান নিজাম উদ্দিন হাজারী।

ফেনীর সিভিল সার্জন শাহরিয়ার কবিরও ফেনীর অধিবাসীদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে মেডিকেল কলেজের গুরুত্বের কথা তুলে ধরে বলেন, ফেনী জেলাসহ আশপাশের ৬০ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান ও মেডিকেল কলেজে ভর্তি আগ্রহী ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার্থে ফেনী সদর হাসপাতাল সংলগ্ন খালি জায়গায় সরকারি মেডিকেল কলেজ স্থাপনের অনুরোধ জানিয়ে একটি প্রস্তাব মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া আছে।

Facebook Comments

" সুস্বাস্হ্য " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ