Foto

ইউটিউবে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে গ্রেপ্তার ২


ইন্টারনেটে ভিডিও শেয়ারিংয়ের মাধ্যম ইউটিউবে রাষ্ট্রবিরোধী গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।


এরা হলেন- খালিদ বিন আহমেদ ও মোহাম্মদ হিজবুল্লাহ।তাদের দুজনেরই বাড়িই চাঁদপুরে। খালিদের বাবা নুর আহমেদ চাঁদপুরের একটি মাদ্রাসার শিক্ষক।

শুক্রবার রাতে তাদেরকে উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. সারোয়ার বিন কাশেম জানিয়েছেন।

বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, তাদের গ্রেপ্তারের পর বেশ কিছু কম্পিউটার সামগ্রী জব্দ করা হয়। তারা দীর্ঘদিন ধরে ইউটিউবে ‘এস কে টিভি’ নামে চ্যানেল চালু করে রাষ্ট্রের অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের আপত্তিকর ও মানহানিকর ভিডিও আপলোড করে আসছিল।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক কাশেম বলেন, খালিদ দুই ভাই ও একবোনের মধ্যে দ্বিতীয়। সে ২০০৮ সালে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করার পর বিবিএতে পড়ার পাশপাশি সে একটি স্কুলে শিক্ষকতা করতো। ছোট ভাইয়ের মাধ্যমে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড ও এডিটিং শেখে খালিদ।

“খালিদ ছাত্র শিবির এবং তার বাবা জামায়াতের রাজনীতির সাথে জড়িত। সে দাবি করেছে ইউটিউব চ্যানেলের সে অ্যাডমিন। দুই বছর যাবত সে এটা পরিচালনা করে আসছে, তাকে সহায়তা করছে হিজবুল্লাহ।”

এই র‌্যাব কর্মকর্তা জানান, হিজবুল্লাহ মহাখালীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ পড়ছে। পাশাপাশি একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে কম্পিউটার অপারেটর হিসাবে চাকুরি করছে। এক বন্ধুর মাধ্যমে খালিদের সঙ্গে তার পরিচয় হয়।

হিজবুল্লাহ র‌্যাবকে বলেছে, সে প্রায় দেড়বছর ধরে ইউটিউব চ্যানেলের সাথে জড়িত। খালিদই তাকে এই চ্যানেলের সাথে জড়িত হওয়ার প্রস্তাব দেয়।

বিভিন্নভাবে প্রচারিত গুজবগুলোকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য এই চ্যানেলটি ব্যবহার করতো বলে জানান অধিনায়ক কাশেম।

Facebook Comments

" আইন ও বিচার " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ