Foto

আসরের প্রথম সেঞ্চুরিতে ভালো সংগ্রহ রাজশাহীর


ঢাকা পর্বের বিপিএল তেমন জমেনি। নানা সমস্যা নিয়ে হয়েছে কথা। এরপর সিলেটে ব্যাটে-বলে দারুণ বিপিএল দেখা গেছে। ঢাকার বাইরে ক্রিকেট গেলে তা নিয়ে এমনিতে দর্শকদের উন্মাদনা তুলনা মূলক বেশি থাকে। ঢাকায় ফেরার পর আবার কি হয় সেখার ছিল সেটি। বিশেষ করে আবার লো স্কোরিং ম্যাচ হয় কিনা।


তবে রাজশাহীর হয়ে দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ভালো ইঙ্গিত দিলেন রাজশাহীর ওপেনার লাউরি ইভান্স। তার সেঞ্চুরি এবং ডেসকটের ফিফটিতে ৩ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৬ রান তুলেছে কিংসরা।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার শাহরিয়ার নাফিজ এবং মিরাজকে হারায় রাজশাহী। এরপর ফিরে যান আগের ম্যাচে ভালো করা মার্শাল আইয়ুব। ২৮ রানে ৩ উইকেট হারানো রাজশাহী পরে আর উইকেট হারায়নি। ইভান্স এবং ডেসকটে তুলেছেন ১৪৮ রান। বিপিএল ইতিহাসে যা তৃতীয় সর্বোচ্চ জুটির রেকর্ড। এছাড়া এবারের বিপিএলের প্রথম সেঞ্চুরিও ইভান্সের নামে উঠলো।

তবে ইভান্সের বিপিএল যাত্রা মোটেও সুখকর হয়নি। মধ্যে খারাপ ফর্মের জন্য দলের বাইরেও রাখা হয়েছে তাকে। তার খেলা আগের পাঁচ ম্যাচে তিনি যথ্রাক্রমে করেছেন ১০, ১ এবং শূন্য। এরপরের ইনিংসে ২ এবং শূন্য রান। এবার সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে পুষিয়ে দিয়েছেন তিনি।

এর আগে বিপিএলে ২০১৭ সালের আসরে গেইল এবং ম্যাককুলাম ২০১ রানের রেকর্ড গড়েন। দ্বিতীয় জুটিটা ১৯৭ রানের। খুলনার হয়ে ভিনসেন্ট এবং শাহরিয়ার নাফিস গড়েন ওই জুটি। তৃতীয় সর্বোচ্চ জুটি ছিল ১৪৬ রানের। গেল আসরে খুলনার বিপক্ষে গেইল এবং মোহাম্মদ মিঠুন গড়েন ওই জুটি।

রাজশাহীর হয়ে এ ম্যাচে ইভান্স করেন ৬২ বলে ১০৪ রান। প্রথমে ধীরে, দেখে শুনে খেলেন তিনি। পরের শুরু করেন ধুমধাম মার। তার ব্যাট থেকে ছয়টি ছক্কা এবং নয়টি চার বেরিয়েছে। পরে ডেসকটে ৪১ বলে ৫৯ রান করেন। ছক্কা হাঁকান তিনটি। আর চারের মার মারেন দুটি।

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ