Foto

‘আরও একবার’ চেষ্টা করতে ২৫০ দিন পর ফিরলেন মেসি


আর্জেন্টিনার জার্সিতে আরও একবার শিরোপা জয়ের চেষ্টা করতে চান লিওনেল মেসি। এ লক্ষ্যেই জাতীয় দলে ফিরেছেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার, জানিয়েছেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি


আর্জেন্টিনার জার্সি সবশেষ গায়ে চাপিয়েছিলেন রাশিয়া বিশ্বকাপে ফ্রান্সের বিপক্ষে। লিওনেল মেসি এরপর জাতীয় দল থেকে সেই যে স্বেচ্ছা-অবসর নিলেন, মাঝে কেটে গেল আট মাস ছয় দিন। ২৫০ দিন এভাবে থাকার পর অবশেষে জাতীয় দলে ফিরলেন মেসি। ভেনেজুয়েলা ও মরক্কোর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচের জন্য ঘোষিত আর্জেন্টিনা দলে ফিরেছেন পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

জাতীয় দলের জার্সিতে মেসির কষ্টের স্মৃতিই বেশি। সব সময় শুনতে হয়, বার্সার হয়ে এত শিরোপা দেশকে জিতিয়েছেন কি? আর্জেন্টিনার জন্য মেসি চেষ্টা যে কম করেছেন তা নয়। বরং নিজের সবটুকু নিংড়ে দিয়েই দেশকে তুলেছিলেন ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে। কোপা আমেরিকাতেও তিনবার ফাইনাল খেলেছে মেসির আর্জেন্টিনা। হয়নি। দেশের হয়ে বড় কোনো শিরোপার মুখ দেখা হয়নি মেসির। দুঃখে এর আগে একবার অবসর ঘোষণা করেছিলেন। পরে ফিরলেও রাশিয়া বিশ্বকাপে গিয়ে শেষ আটেও উঠতে পারেনি মেসির আর্জেন্টিনা। আর তাই জাতীয় দল থেকে নিয়েছিলেন স্বেচ্ছা-অবসর। এবার কোপা আমেরিকা সামনে রেখে জাতীয় দলে ফিরলেন মেসি।

আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি জানিয়েছেন, মেসি আরও একবার জাতীয় দলকে বড় কোনো শিরোপা জেতানোর চেষ্টা করে দেখতে চান। সংবাদমাধ্যমকে স্কালোনি বলেন, ’রাশিয়া বিশ্বকাপ ছিল হতাশার এবং মেসির জন্য তো বটেই। সিদ্ধান্তটা (ফেরার) তাই প্রথম ছয় ম্যাচে (স্কালোনির অধীনে) নেননি। সে যখন দেখল, সময়ের সঙ্গে আমরা বেশ ভালোই গুছিয়ে নিয়েছি, আর আমাদের খেলা দেখেও সে সন্তুষ্ট; মেসি তাই আরও একবার চেষ্টা করে দেখতে চায়। আমরা তাঁকে স্বাগত জানাই। তবে সে একটি না দুটি ম্যাচ খেলবে সে ব্যাপারে আমি সিদ্ধান্ত নেব। এখনো হাতে ১৫ দিন আছে। তাই একটি ম্যাচ খেলার কথা বলা পাগলামিই হয়ে যায়।’

২২ মার্চ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মাঠ ওয়ান্ডা মেট্রোপলিতানো স্টেডিয়ামে প্রীতি ম্যাচে ভেনেজুয়েলার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। এর চার দিন পর মরক্কোর বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলবে স্কালোনির দল। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ’মার্কা’ জানিয়েছে, মেসি শুধু ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে খেলবেন। মরোক্কোর বিপক্ষে তাঁকে দেখা যাবে না। কারণ তখন লা লিগার মৌসুমের শেষ ভাগে পৌঁছে যাবে বার্সা। এ ছাড়াও চ্যাম্পিয়নস লিগ আর কোপা ডেল রে ফাইনালের প্রস্তুতি নেওয়ার দায়িত্ব তো রয়েছেই। এবার কোপা আমেরিকা গড়াবে ব্রাজিলে ১৪ জুন থেকে। মেসি যে লাতিন আমেরিকান শ্রেষ্ঠত্বের এই টুর্নামেন্ট জয়ের লক্ষ্য নিয়েই আর্জেন্টিনার জার্সিতে ফিরেছেন, সে কথা বলাই বাহুল্য।

মেসির মতো অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়াও ফিরেছেন আর্জেন্টিনার। ডি মারিয়াও গত বিশ্বকাপের পর আর্জেন্টিনার জার্সিতে আর কোনো ম্যাচ খেলেননি। তবে আক্রমণভাগে বাদ পড়েছেন সার্জিও আগুয়েরো আর গঞ্জালো হিগুয়েইন। চোটের কারণে ডাক পাননি মাউরো ইকার্দি।

আর্জেন্টিনা দল:
গোলরক্ষক: আগুস্তিন মার্চেসিন (ক্লাব আমেরিকা), হুয়ান মুসো (উদিনেসে),এস্তেবান আন্দ্রাদা (বোকা জুনিয়র্স), ফ্রাঙ্কো আরমানি (রিভার প্লেট)। ডিফেন্ডার: হেরমান পেজ্জালা (ফিওরেন্তিনা), গাব্রিয়েল মের্কাদো (সেভিয়া), হুয়ান ফয়েথ (টটেনহ্যাম), নিকোলাস ওতামেন্দি (ম্যানচেস্টার সিটি),ওয়াল্টার কানেমান (গ্রেমিও), নিকোলাস তাগলিয়াফিকো (আয়াক্স), মার্কোস অ্যাকুনা (স্পোর্টিং লিসবন), গঞ্জালো মনতিয়েল (রিভার প্লেট), রেনজো সারাভিয়া (রেসিং ক্লাব), লিসান্দ্রো মার্টিনেজ (ডিফেন্সা হুস্তিসিয়া) । মিডফিল্ডার: লেয়ান্দ্রো পারেদেজ (পিএসজি), গুইদো রদ্রিগেজ (আমেরিকা), জিওভান্নি লো চেলসো (রিয়াল বেটিস), মানুয়েল লানজিনি (ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড), রবার্তো পেরেইরা (ওয়াটফোর্ড), আঙ্গেল দি মারিয়া (পিএসজি), মাতিয়াস জারাক্কো (রেসিং ক্লাব), আইভান মার্কোনে (বোকা জুনিয়র্স), ডোমিঙ্গো ব্লাঙ্কো (ডিফেন্সা হুস্তিসিয়া), রদ্রিগো দে পল (উদিনেজে)। ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), গঞ্জালো মার্টিনেজ (আটলান্টা ইউনাইটেড), অ্যাঙ্গেল কোরেয়া (অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ), পাওলো দিবালা (জুভেন্টাস), দারিও বেনেদেত্তো (বোকা জুনিয়র্স), লাউতারো মার্টিনেজ (ইন্টার মিলান), মাতিয়াস সুয়ারেজ (রিভার প্লেট)।

Facebook Comments

" ফুটবল সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ