Foto

আমি শ্বাস টানতে পারছি না


আমি শ্বাস টানতে পারছি না’, ‘আমি শ্বাস টানতে পারছি না’, ‘আমি শ্বাস টানতে পারছি না’।তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটে দেশটির ঘাতক দলের হাতে খুন হওয়ার আগে এই ছিল সাংবাদিক জামাল খাসোগির শেষ কথা।


ওয়াশিংটন পোস্টের এই কলামিস্টের খুনের তদন্ত সম্পর্ক জানেন—এমন একটি সূত্রের কাছ থেকে খাসোগির জীবনের শেষ মুহূর্তের কথা সম্পর্কে জানা গেছে। এ বিষয়ে গতকাল রোববার সিএনএন অনলাইন একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, খাসোগির যন্ত্রণাময় শেষ মুহূর্তের অডিও রেকর্ডিংয়ের অনূদিত প্রতিলিপি পড়েছে ওই সূত্র।

সূত্রের ভাষ্য, প্রতিলিপি থেকে এটা স্পষ্ট, গত ২ অক্টোবর খাসোগিকে মোটেই যেনতেনভাবে হত্যা করা হয়নি। তাঁকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

খাসোগি খুনের লোমহর্ষক বিবরণ ওই সূত্রের ভাষ্যে উঠে এসেছে।

সূত্রের ভাষ্য, হত্যাকারীদের সঙ্গে খাসোগির ধস্তাধস্তি হয়েছে। তিনি প্রাণপণ লড়েছেন। একপর্যায়ে তিনি বলেছেন, ‘আমি শ্বাস টানতে পারছি না।’

তিনবার এই কথা বলেন খাসোগি। এটাই ছিল খাসোগির শেষ কথা।

তদন্তের প্রতিলিপির টীকায় উল্লেখ করা হয়েছে, করাত দিয়ে খাসোগির শরীর কেটে টুকরো টুকরো করা হয়। হত্যা বা কাটাকাটির শব্দ আটকাতে হত্যাকারীদের গান শুনতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

তদন্তের প্রতিলিপির বরাতে সূত্রের ভাষ্য, ঘটনাস্থল (সৌদি কনস্যুলেট) থেকে একাধিকবার ফোন করা হয়েছে। ফোনে হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতির বিষয়ে জানানো হয়।

তুর্কি কর্মকর্তাদের ধারণা, রিয়াদে থাকা দেশটির কোনো বড় কর্তার কাছে এই ফোন করা হয়।

খাসোগি খুনের নির্দেশদাতা হিসেবে সন্দেহের তির সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের দিকে। তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা তেমন আভাসই দিয়েছেন। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে সৌদি আরব।

Facebook Comments

" বিশ্ব সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ