Foto

আবারও জরিমানা দিচ্ছেন সাকিব


ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত মানতে দ্বিধা করায় আইসিসি সাকিব আল হাসানের ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করেছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে জরিমানার অঙ্কটা বেড়েছে। সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ম্যাচ ফির ২০ শতাংশ জরিমানা দিতে হচ্ছে সাকিবকে। তাঁর অপরাধ, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ দল বোলিং শেষ করতে পারেনি।


আজ আইসিসি এক বিবৃতিতে সাকিবের এ শাস্তির কথা জানিয়েছে। গতকাল ৩৬ রানে জয়ের পথে বারবার বোলিং পরিবর্তন আনতে হয়েছে সাকিবকে। এ ছাড়া চার–ছক্কার খেলায় বলও বারবার সীমানাছাড়া হচ্ছিল। তাই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বোলিং শেষ করতে পারেনি বাংলাদেশ। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে অলআউট করার পরও দেখা গেছে এক ওভার বেশি সময় নিয়েছে বাংলাদেশ। আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের ২.২২.১ আর্টিকেল অনুযায়ী প্রতি এক ওভার সময়ের জন্য ম্যাচ ফির ১০ শতাংশ জরিমানা করা হয়। এ কারণে বাংলাদেশ দলের সবার ১০ শতাংশ জরিমানা হয়েছে। আর অধিনায়ক হিসেবে সাকিবের ক্ষেত্রে সেটা বেড়ে হয়েছে ২০ শতাংশ। আগামী ১২ মাসের মধ্যে এমন কিছু ঘটলে সেটা নিষেধাজ্ঞায় রূপ নেবে।

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে চারজন পেসারের সব ওভার ব্যবহার করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরাও প্রায় পুরোটা সময় বল সীমানা থেকে কুড়িয়ে আনতে পাঠিয়েছেন ফিল্ডারদের। এর ফলে নির্ধারিত সময়ের পরও দুই ওভার বল করতে হয়েছে উইন্ডিজদের। এ কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পুরো দলকে ম্যাচ ফির ২০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। আর অধিনায়ক কার্লোস ব্রাফেটের জরিমানা ৪০ শতাংশ। তাঁর ক্ষেত্রেও ১২ মাসের সময়সীমায় আরেকবার এমনটা ঘটলে নিষেধাজ্ঞার হুমকি রয়েছে।

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ