Foto

আপওয়ার্কের ভবিষ্যৎ কোন পথে?


বিশ্বজুড়ে ফ্রিল্যান্সারদের কাছে জনপ্রিয় অনলাইন কাজের মার্কেটপ্লেস হিসেবে পরিচিত আপওয়ার্ক। ২০০৩ সালে চালু হওয়া এই মার্কেটপ্লেসটি আগে ওডেস্ক নামে পরিচিত ছিল, ২০১৫ সালে অন্য আরেকটি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস ইল্যান্সের সঙ্গে একত্র হয়ে এটি আপওয়ার্ক নামে পরিচালিত হয়। দিন দিন এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। এখন আপওয়ার্কের ওপর চোখ পড়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের। গুঞ্জন উঠেছে, আপওয়ার্ককে অধিগ্রহণ করার চেষ্টা চালাচ্ছে মাইক্রোসফট।


গত বছরের অক্টোবরে আইপিওতে আসার পর থেকেই আপওয়ার্ক নিয়ে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আগ্রহ বাড়তে থাকে। এর ব্যবসার মডেল কর্মী নিয়োগের পদ্ধতিতে ব্যাপক পরিবর্তন এনেছে। মার্কেটপ্লেস হিসেবে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য কাজ জোগাড় করে দেওয়া ও প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য কর্মী জোগাড় করে দেয় আপওয়ার্ক। এর বিনিময়ে আয়ের একটি নির্দিষ্ট অংশ আপওয়ার্ককে দিতে হয়। এর আগে ফ্রিল্যান্সিং কাজগুলো নানা অনলাইন নেটওয়ার্ক ও জব সাইটগুলো ছড়িয়ে ছিল। আপওয়ার্ক একটি একক সেবা দিতে ফ্রিল্যান্সার ও কাজদাতাদের মধ্যে যোগাযোগ করিয়ে দেয় এবং তাদের মধ্যে দীর্ঘ মেয়াদে সম্পর্ক তৈরি করে দেয়।

বাজার গবেষকেরা বলছেন, ফ্রিল্যান্স মার্কেট দ্রুত বাড়ছে। ২০২৭ সাল নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রের অধিকাংশ কাজই ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমেই করা হবে। ভবিষ্যতে ফ্রিল্যান্স অর্থনীতির ক্ষেত্রে আপওয়ার্ক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার মতো অবস্থানে রয়েছে।

কয়েক বছর ধরে মাইক্রোসফট যেভাবে কৌশলগত পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে, তাতে আপওয়ার্কের মতো প্রতিষ্ঠান অধিগ্রহণের বিষয়টির সঙ্গে মানানসই। এর আগে পেশাদার ব্যক্তিদের সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইট হিসেবে পরিচিত লিঙ্কডইন অধিগ্রহণ করে মাইক্রোসফট। এতে চাকরিপ্রার্থী ও পেশাদারদের একটি বিশাল নেটওয়ার্ক ইকোসিস্টেম মাইক্রোসফটের হাতে এসেছে। ২৬ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার চুক্তিতে মাইক্রোসফট যখন লিঙ্কডইনকে অধিগ্রহণ করে, তখন এর ব্যবহারকারী ছিল ৪০ কোটি। মাইক্রোসফট লিঙ্কডইনকে অধিগ্রহণ করলেও এটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠান হিসেবে এখনো কাজ করে যাচ্ছে। এ ছাড়া মাইক্রোসফট সম্প্রতি কোড রাখার ওয়েবসাইট হিসেবে পরিচিত গিটহাবকে ৭৫০ কোটি মার্কিন ডলারে অধিগ্রহণ করেছে। এর বাইরে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনার কাজে ব্যবহৃত গ্লিন্ট নামের একটি টুল ৪০ কোটি মার্কিন ডলারে অধিগ্রহণ করেছে মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফটের ব্যবসা সেবা হিসেবে পরিচালিত নেটওয়ার্কের জন্য আপওয়ার্কের মতো প্রতিষ্ঠানকে অধিগ্রহণের বিষয়টিতে যুক্তি রয়েছে।

লিঙ্কডইনকে ২ হাজার ৬২০ কোটি মার্কিন ডলারে কেনার বিষয়ে মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহী সত্য নাদেলা বলেন, লিঙ্কডইনকে মাইক্রোসফটের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখার জন্য গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছিল। বিশ্বের প্রতিটি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানে মানুষের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে লিঙ্কডইন ও মাইক্রোসফট অফিস ৩৬৫ এর প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, লিঙ্কডইনকে মাইক্রোসফট যে চোখে দেখেছিল এখন সেভাবেই আপওয়ার্ককে বিবেচনা করছে। আপওয়ার্কের বিভিন্ন রিসোর্স বা সম্পদ মাইক্রোসফটের জন্য ভবিষ্যতে কাজে লাগতে পারে।


এর আগে লিঙ্কডইনকে কেনার সময় প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারের দামে ব্যাপক পতন দেখা দিয়েছিল। আপওয়ার্কের ক্ষেত্রেও গত বছর থেকে একই প্রবণতা রয়েছে। ফলে এর বর্তমান মূল্যায়ন সম্ভাব্য অধিগ্রহণের জন্য আকর্ষণীয় হতে পারে। এ কারণেই অনেক বিশ্লেষক আপওয়ার্ককে কেনার কথা তুলছেন।

তবে, মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকে এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো প্রস্তাব দেওয়া হয়নি। তাই আপওয়ার্কে কেনার বিষয়টি চূড়ান্ত নয়। তবে আপওয়ার্কের ওপর মাইক্রোসফটের চোখ পড়ায় এখন অন্যান্য প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠানের কাছেও আপওয়ার্কের আবেদন বেড়ে যাবে। গুগল, সেলসফোর্সের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো চাইবে আপওয়ার্ককে পকেটে পুরতে। এটাই আপওয়ার্কে বিনিয়োগকারীদের জন্য দারুণ সুযোগ হয়ে আসতে পারে।

Facebook Comments

" প্রযুক্তি " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ