Foto

আগুনের জবাব আগুন দিয়েই দিলেন


মেলবোর্ন টেস্টে আজ তৃতীয় দিনে ফলোঅনে পড়েছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাটিংয়ে না পাঠিয়ে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছে ভারত। যদিও হাতে ৫ উইকেট রেখে কোহলিদের লিড এরই মধ্যে ৩৪৬


অস্ট্রেলিয়াকে ফলোঅনে না পাঠিয়ে ভারত কি ভুল করল?

লিড সাড়ে তিন শ ছুঁই ছুঁই হলেও প্রশ্নটা উঠতেই পারে। মেলবোর্নে আজ টেস্টের তৃতীয় দিনে ১৫১ রানে অলআউট হয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এতে প্রথম ইনিংসেই ২৯২ রানের লিড পাওয়ার সঙ্গে অস্ট্রেলিয়াকেও ফলোঅনে ফেলেছিল ভারত। কিন্তু টিম পেইনের দলকে আবারও ব্যাটিংয়ে না পাঠিয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নামার সিদ্ধান্ত নেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। প্যাট কামিন্সের কারণে এই সিদ্ধান্ত এখন বুমেরাং। অস্ট্রেলিয়ার এই পেসারের তোপে পুড়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত যে ৫৪ রান তুলতেই ৫ উইকেট হারিয়েছে!

অস্ট্রেলিয়াকে পেস আগুনে পুড়িয়েছেন জাসপ্রীত বুমরা। স্বাগতিকদের ১৫১ রানে গুটিয়ে যাওয়ায় ৬ উইকেট নিয়েছেন বুমরা। কামিন্স যেন সেই আগুনের জবাব পাল্টা আগুনেই দিলেন। গতির সঙ্গে বাউন্স আদায় করে ভারতের টপ অর্ডারকে স্রেফ গুঁড়িয়ে দিয়েছেন এই পেসার। অভিষিক্ত ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল অপরাজিত ২৮ রানে এক প্রান্ত ধরে রাখলেও টপ অর্ডার থেকে মিডলঅর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যান দাঁড়াতেই পারেননি। ভারতের প্রথম ইনিংসে ৪৪৩ রানের ভিত গড়ে দেওয়া সেরা দুই ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পূজারা ও কোহলিকে কোনো রানই করতে দেননি কামিন্স। ফিরিয়েছেন নির্ভেজাল ‘ডাক’ উপহার দিয়ে। টপ অর্ডারে আউট হওয়া প্রথম চার ব্যাটসম্যানই কামিন্সের শিকার।

প্রতিপক্ষকে ফলোঅনে না পাঠিয়ে কোহলি ব্যাটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ায় টুইটারে অনেকেই মজা করে বলেছেন, ভারতীয় অধিনায়ক (৮২) আগের ইনিংসে সেঞ্চুরি পাননি। সেঞ্চুরির লোভেই হয়তো আবারও ব্যাটিংয়ে নামার সিদ্ধান্ত। কথাটির কোনো ক্রিকেটীয় ব্যাখ্যা না থাকলেও এ নিয়ে বেশ রসিকতাই চলছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। ওদিকে কোহলি ভাবতেই পারেন, ক্রিকেট সত্যিই নির্মম! চলতি বছর টেস্টে কোহলির রানসংখ্যাই (১৩২২) সর্বোচ্চ, আর তিনি কিনা বছরের শেষ ইনিংসে ‘ডাক’ মারলেন!

পূজারা ব্যাটিংয়ে আসার পর লেগ গালি অঞ্চলে ফিল্ডার রেখে ফাঁদ পেতেছিলেন কামিন্স। ভারতের প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া পূজারা সেই ফাঁদেই পা দিয়ে লেগ গালিতে ক্যাচ দিয়েছেন মার্কাস হ্যারিসকে। ওই ওভারেরই শেষ বলে পূজারার আউটের ‘নকল’ করেন কোহলি। সেই লেগ গালিতেই হ্যারিসেরই মুঠোবন্দী হতে হয় তাঁকে। নিজের পরের ওভারের প্রথম বলে অজিঙ্কা রাহানেকেও ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়েছেন কামিন্স। হয়নি। তা না হলেও ভারতের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান আগারওয়াল ও ঋষভ পন্ত (৬) হাসিমুখে মাঠ ছাড়তে পারেননি শুধু কামিন্সের জন্য। তৃতীয় দিন শেষে হাতে ৫ উইকেট রেখে ৩৪৬ রানের লিড পেয়েছে ভারত। প্রথম ইনিংসে পূজারার ১০৬ আর কোহলির ৮২—কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা এখন বোঝা যাচ্ছে। ভারতের প্রথম ইনিংসে এ দুজন রান না পেলে লিডের অবস্থাও নাজুক হতো।

এই টেস্টে আগের দুই দিনে রাজত্ব করেছেন ব্যাটসম্যানরা। আজ প্রথমে বুমরা এবং পরে কামিন্স বুঝিয়ে দিলেন মেলবোর্নের ব্যাটিংবান্ধব উইকেটে বোলারদের জন্যও কিছু আছে। আজ সারা দিনে পতন হওয়া ১৫ উইকেটের মধ্যে ১০টি ভাগ করেছেন এই দুই পেসার। আর দুই দলের পেসাররা মিলে উইকেট নিয়েছেন মোট ১৩টি। এর মধ্যে শুধু শেষ সেশনেই পড়েছে ৮ উইকেট!

Facebook Comments

" ক্রিকেট নিউজ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ