Foto

অথচ ম্যানচেস্টার সিটির শেষটা হলো পরাজয় দিয়ে!


ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিউক্যাসল ইউনাইটেডের বিপক্ষে ২-১ গোলের ব্যবধানে হেরে গেছে ম্যানচেস্টার সিটি। নিউক্যাসলের হয়ে গোল করেছেন রনডন ও রিচাই। ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে গোলটি করেন আগুয়েরো।


সিটির হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে পেপ গার্দিওলার ১০০তম ম্যাচটি শেষ হলো হতাশা নিয়ে। গার্দিওলা মাঠ ছেড়েছেন পরাজয়ের তিক্ত স্বাদ নিয়ে।

খেলা শুরু হতে না হতেই ২৫ সেকেন্ডের মাথাতেই নিউক্যাসলের জালে বল জড়িয়ে দিলেন আগুয়েরো। ম্যানচেস্টার সিটি ১-০ গোলে এগিয়ে। ম্যাচের শেষার্ধ পর্যন্ত এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে হেরেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে গার্দিওলার শিষ্যদের।

নিউক্যাসলের মাঠে ম্যাচের শুরুতেই বল নিয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষণে হানা দেয় সিটি। স্টার্লিংয়ের হাওয়ায় ভাসানো পাস হেডে আগুয়েরোর কাছে পাঠান সিলভা। ফাঁকায় বল পেয়ে সিটির আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের গোল দিতে কোনো সমস্যাই হয়নি। ১৩তম মিনিটে নিউক্যাসল ভালো সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া করে। পেরেজের ভুলে গোলবঞ্চিত হয় স্বাগতিকেরা। ৪৪তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ানোর সুযোগ পায় সিটিও। কিন্তু সিলভার দুর্বল শটে গোলের দেখা পায়নি অতিথিরা। প্রথমার্ধে আর কোনো দলই গোলমুখ খুলতে পারেনি।

দ্বিতীয়ার্ধে গোলের দেখা পায় স্বাগতিকেরা। ৬৬তম মিনিটে রনডনের গোলে সমতায় ফেরে নিউক্যাসল। হেইডেনের হেড থেকে রনডনের গা ছুঁয়ে সিটির জালে বল জড়ালে সমতায় ফেরে ক্যাসল। সিটির কপাল পোড়ে ৭৮তম মিনিটে রেফারি ফাউলের বাঁশি বাজালে। সিটির ফার্নানদিনহোর ফাউলের শিকার হন ক্যাসলের লংস্টাফ। ৮০তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে সিটির কবর রচনা করেন ক্যাসলের রিচাই।
৭৭ শতাংশ সময় নিজেদের পায়ে বল রেখেছে সিটি। ম্যাচের শুরুতেই পেয়েছে গোল। অথচ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের শেষটা হলো পরাজয়ের স্বাদ নিয়ে! ১৩ বছর পর নিউক্যাসলের বিপক্ষে ম্যাচ হারল সিটি।

ইপিএলের পয়েন্ট টেবিলে আজকের ম্যাচের পর ২৪ খেলায় ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় শীর্ষে থাকা লিভারপুলের ( ২৩ ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট) পরেই সিটির অবস্থান। ২৩ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে সিটির পরেই টটেনহাম। আর সিটির সমান ম্যাচ খেলে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে নিউক্যাসলের অবস্থান টেবিলের ১৪ নম্বরে।

Facebook Comments

" ফুটবল সংবাদ " ক্যাটাগরীতে আরো সংবাদ